“পৃথিবীর তুলনায় অনেক ভালো দুনিয়ায় রয়েছো আমার দেবদূত!”, জন্মদিনে স্বামীকে স্মরণ করে আবেগঘন পোস্ট তাপস পত্নী নন্দিনীর

নিজস্ব প্রতিবেদন: আজ জনপ্রিয় অভিনেতা তাপস পালের জন্মদিন। এই অভিনেতাকে চেনেন না এরকম মানুষ হয়তো খুব কমই রয়েছেন। ৯০ দশকের অন্যতম জনপ্রিয় অভিনেতাদের মধ্যে রয়েছেন তাপস পাল। একটা সময় দাপটের সঙ্গে ইন্ডাস্ট্রিতে অভিনয় করে গিয়েছেন তিনি। সম্প্রতি এদিন তার জন্মদিন উপলক্ষে ফেসবুকে নিজের সমস্ত ভালবাসা উজাড় করে দিয়ে একটি সুন্দর পোস্ট শেয়ার করেছেন প্রয়াত অভিনেতার স্ত্রী নন্দিনী মুখোপাধ্যায় পাল।

প্রসঙ্গত আজ ২৯ শে সেপ্টেম্বর, তাপস পালের ৬৪ তম জন্মদিন। আজ হয়তো তিনি আমাদের মাঝে নেই তবে দীর্ঘ সময় ধরেই নিজের অভিনয়ের মাধ্যমে দর্শকদের হৃদয় কিন্তু জায়গা করে নিয়েছেন এই অভিনেতা। সত্যি কথা বলতে তার জীবনটা কিন্তু অত্যন্ত অল্প সময়ের ছিল। জীবনের শেষ দিকে একের পর এক সমস্যার মুখোমুখি হয়েছেন অভিনেতা তাপস পাল। কিছুটা অভিমান আর কিছুটা অভিযোগ নিয়েই চলে গিয়েছিলেন তিনি।

সম্প্রতি এদিনের ফেসবুক পোস্টে স্বামীর একটি অল্প বয়সের ছবি শেয়ার করেছেন। ক্যাপশনে নন্দিনী পাল লেখেন, “আমি জানি এই পৃথিবীর তুলনায় আজ তুমি অনেক ভাল একটা দুনিয়ায় আছ। আমরা তোমাকে রোজ উদযাপন করি। তবে আজকের দিনটা আরও বেশি স্পেশ্য়াল। আমার দেবদূত, তোমাকে জন্মদিনের অনেক শুভেচ্ছা জানাই। আমি প্রতি মুহূর্তেই তোমার উপস্থিতি অনুভব করি।

সেই কারণেই আজও আমি মুখে হাসি নিয়েই বেঁচে আছি। আমাকে এত সুন্দর কন্যা সন্তান দেওয়ার জন্য তোমাকে অনেক ধন্যবাদ। ও আমাকে সারাক্ষণই তোমার কথা মনে করিয়ে দেয়। অন্যদিকে আমি তোমার দৈহিক উপস্থিতিকেও খুব মিস করি। যতদিন না আমাদের আবার দেখা হচ্ছে, তোমার স্মৃতিটুকু আঁকড়েই বেঁচে থাকার চেষ্টা করব। তোমাকে আমি খুব ভালবাসি। আমার প্রণাম নিও বাবি…”।

পাঠকদের উদ্দেশ্যে জানিয়ে রাখি, ১৯৮০ সালে প্রথমবার তরুণ মজুমদারের পরিচালনায় দাদার কীর্তি ছবিতে অভিনয়ের মাধ্যমে ইন্ডাস্ট্রি তে পা রেখেছিলেন তাপস পাল। তারপর আর তাকে কখনো পিছন ফিরে তাকাতে হয়নি। তাপস পালের ঝুলিতে রয়েছে সাহেব, ভালবাসা ভালবাসা, গুরু দক্ষিণার মতো একাধিক সুপার হিট চলচ্চিত্র। সাহেব ছবিতে অভিনয় করার জন্য ফিল্মফেয়ার পুরস্কার পেয়েছিলেন তাপস পাল। শুধুমাত্র টলিউড নয় বলিউডে ও পা রেখেছিলেন এই অভিনেতা। মাধুরী দীক্ষিতের সঙ্গে একটি ছবিতে অভিনয় করতে দেখা গিয়েছিল তাকে। যদিও খুব একটা নাম করতে পারেননি তিনি। ২০১৪ সালে তিনি রাজনীতিতে যোগ দেন। তৃণমূল কংগ্রেসের হয়ে ভোটে জিতে সাংসদ হয়েছিলেন তাপস পাল।

এরপরই ঘটে বিপত্তি।২০১৬-র ডিসেম্বরে রোজভ্যালিকাণ্ডে তাপস পালকে গ্রেফতার করে সিবিআই। ২০১৮-র ফেব্রুয়ারিতে রোজভ্যালি মামলায় তিনি জামিন পান।শেষ জীবনের বেশিরভাগ সময়ই অসুস্থতার মধ্যে কেটেছে তাপস পালের। শোনা যায়, অভিনয়েও ফিরতে চেয়েছিলেন তাপস। তবে তার হাতে আর সেই সুযোগ আসেনি।

অসংখ্য ভক্তের মনে ‘দাদার কীর্তি’-র কেদারের স্মৃতি অক্ষুন্ন রেখেই চিরবিদায় জানিয়েছিলেন এই অভিনেতা। জানা যায় মৃত্যুর কয়েক দিন আগে থেকেই স্নায়ুর রোগে ভুগছিলেন তিনি। এমনকি কথা বলতে বা চলাফেরা করতে গিয়েও সমস্যা হচ্ছিল তার। উল্লেখ্য তাপস পাল আর নন্দিনী পাল এর একটি মেয়ে রয়েছে যার নাম সোহিনী। বর্তমানে তিনিও একজন অভিনেত্রী।

Back to top button