Uncategorizedনিউজভিডিও

মিঠুন চক্রবর্তীর ডাস্টবিনে কুড়িয়ে পাওয়া সেই মেয়ের আজকের লুক-গ্ল্যামার দেখলে চমকে উঠবেন আপনিও, রইলো ভাইরাল ছবি!

নিজস্ব প্রতিবেদন:-বাংলার অভিনয় জগতে বিভিন্ন অভিনেতা অভিনেত্রীদের মধ্যে বেশ কিছু কিছু অভিনেতা-অভিনেত্রী থাকে যারা আমাদের মনে এক বিশেষ ভাবে জায়গা করে নেয়। শুধুমাত্র যে অভিনয় দক্ষতা দিয়ে এ জায়গা করা সম্ভব তেমনটা নয় এর পাশাপাশি তার ব্যবহার তার ক্রিয়াকলাপ এবং সমাজের প্রতি দায়’ব’দ্ধতা সবকিছু আমাদের নজর কা’ড়ে। বাংলা সিনেমা জগৎ যখন মুখ থুবড়ে পড়তে বসে ছিল তখন সেই সিনেমা জগতের সবার উপরে তুলে ধরেছিলেন যে মানুষটি সে মানুষটি নাম মিঠুন চক্রবর্তী।

বাঙালি মিঠুন চক্রবর্তী বাংলা সিনেমা যখন বেহাল অবস্থা ছিল তখন একের পর এক দু’র্ধর্ষ ছবি উপহার দিয়ে রীতিমত প্রথম তালিকা নিয়ে আসে ফের আরও একবার। বাংলা সিনেমা জগতে উত্তম কুমার এরপর বাঙালিরা সাধারণত মিঠুন চক্রবর্তী কেই প্রাধান্য দিয়ে থাকে । তবে এই মিঠুন চক্রবর্তী বাস্তব জীবনের সাথে অভিনয় জীবন সম্পূর্ণ আলাদা আলাদা একটা মানুষ সেটা তার এই ঘটনা থেকেই প্রমাণ পায় ।

বাংলার পাশাপাশি মিঠুন চক্রবর্তী হিন্দি সিনেমা তো একচেটিয়া অধিকার করে ছিল একসময় বলাবাহুল্য এখনো তার নাম ডাকার রয়েছে। তবে নাম ঐশ্বর্য খ্যাতির পিছনে একটা ভালো মানুষের যে চেহারা আছে তা তিনি এই ঘটনা মাধ্যমে প্রকাশ করেছেন ।শুধুমাত্র লাইট ক্যামেরা আর বড় পর্দা দিয়ে তিনি যে নায়ক তেমনটা কিন্তু নয় তার পাশাপাশি বাস্তব জীবনে তিনি মহানায়ক। তার কারণ আর কিছুই নয় । তার কারণ তার মনের উদারতা এবং মা’নসি’কতা ।

শোনা যায় বছর ২৫ আগে পশ্চিমবঙ্গের কোন একটি ডাস্টবিনে একটি সদ্যোজাত কন্যা কান্নার আওয়াজ শুনতে পায় সেখানকার স্থানীয়রা । সেই সূত্রে তারা একটি এনজিওকে খবর দেয় এবং এনজিও সে ঘটনাস্থলে পৌঁছায় । খবরটি মিঠুন চক্রবর্তীর কাছেও পৌঁছায় এবং মিঠুন চক্রবর্তী স্থানে গিয়ে উপস্থিত হন ।

এর পাশাপাশি তিনি এনজিওর আধিকারিকদের কাছে আবেদন করেন যাতে ওই কন্যাসন্তানটিকে তার হাতে তুলে দেওয়া হয় । অর্থাৎ মিঠুন চক্রবর্তী কন্যা সন্তান দত্তক নিতে চাই এবং তাকে সমর্থন করে তার হাতে তুলে দেয় সে কন্যা সন্তানকে ।যদিও তার বাড়িতে তিন সন্তান এখনো বিরাজমান তারপরও এ কন্যা সন্তানকে দত্তক নেওয়ার ঘটনা টা কতটা সমর্থনযোগ্য হবে পরিবারের পক্ষ থেকে তা নিয়েছিল সং’শয়।

তবে ঘটনাটা ঘটলো সম্পূর্ণ উল্টো। বরং বিরোধিতার জায়গায় পরিবার জানালো সম্পূর্ণ সমর্থন তার এই সিদ্ধান্তকে ।অবশেষে বাকি তিন সন্তানের সাথে ও ওই কন্যা সন্তান হয়ে উঠতে থাকলো মিঠুন চক্রবর্তীর বাড়িতে ।এখন সেই মেয়ে রূপে-গুণে হয়ে উঠেছে মা লক্ষী । তার সাথে সাথে সক্রিয় হয়ে উঠেছে সোশ্যাল মিডিয়াতেও । শোনা যাচ্ছে যে আগামী সময়ে অর্থাৎ আগামী বছরে বলিউডের ডেবিউ করতে চলেছে এই মিঠুন কন্যা ।

Leave a Reply

Your email address will not be published.

Back to top button