Connect with us

নিউজ

হোম সেন্টারে উচ্চমাধ্যমিক পরীক্ষা নেওয়াকে ঘিরে জড়ো হলে একরাশ প্রশ্ন কি বলছে শিক্ষা পর্ষদ? জানুন বিস্তারিত।

নিজস্ব প্রতিবেদন:করোনা আবহে চলতি বছর হোম সেন্টার অর্থাৎ নিজের স্কুলে উচ্চ মাধ্যমিক পরীক্ষা নেওয়ার সিদ্ধান্ত গ্রহণ করা হয়েছে।প্রসঙ্গত যাতে কোনরকম ভাবে পড়ুয়াদের মধ্যে ভাইরাসের সংক্রমণ ছড়িয়ে পড়তে না পারে এবং বাড়বাড়ন্ত পরিস্থিতি না তৈরি হয় সেই কারণে উচ্চমাধ্যমিক শিক্ষা সংসদ এই সিদ্ধান্ত নিয়েছে।

কিন্তু বিশেষজ্ঞদের একাংশের দাবি এই সিদ্ধান্তের যেমন ইতিবাচক দিক রয়েছে তেমনি রয়েছে অনেক নেতিবাচক দিকও। কারণ নিজের স্কুলে পরীক্ষা হলে ছাত্র-ছাত্রীদের ভালো ফলাফল সুনিশ্চিত করার জন্য শিক্ষকরা খুব সহজেই সহযোগিতার হাত বাড়িয়ে দিতে পারেন। যেটি একেবারেই কাম্য নয়।

এই প্রসঙ্গে কলেজিয়াম অফ অ্যাসিস্ট্যান্ট হেডমাস্টার এন্ড অ্যাসিস্ট্যান্ট হেডমিস্ট্রেসেস এর সম্পাদক সৌদিপ্ত দাস জানিয়েছেন,”নিজের স্কুলের ছাত্র-ছাত্রীদের একটু বেশি নম্বর পাইয়ে দেওয়ার প্রবণতা থেকে শিক্ষকরা সহযোগিতা করতে পারেন।

সেই সম্ভাবনা থেকেই যাচ্ছে। সহজাত প্রবণতা থেকে কেউ কেউ এটা করবেন।আর যে স্কুলের শিক্ষকরা পরীক্ষার নিয়ম কঠোর ভাবে পালন করবেন সেখানকার ছাত্রছাত্রীরা বাড়তি সুযোগ পাওয়া থেকে বঞ্চিত হবে। ফলে একটা বৈষম্য তৈরী হয়ে যাবে”।

প্রসঙ্গত আগামী এপ্রিল মাসের 2 তারিখ থেকে শুরু হতে চলেছে উচ্চ মাধ্যমিক পরীক্ষা। 20 এপ্রিল পর্যন্ত এই পরীক্ষা চলবে। এই পরীক্ষা প্রসঙ্গে উচ্চমাধ্যমিক শিক্ষা সংসদের সভাপতি চিরঞ্জীব ভট্টাচার্য্য জানিয়েছেন, “আমরা সমস্যাগুলো সম্পর্কে ওয়াকিবহাল।

আমরা পরীক্ষা পরিচালনার দায়িত্বে থাকা সকলকে সজাগ থাকার বার্তা দিয়েছি। আরো কিছু করা যায় কিনা সেটা চিন্তা ভাবনা করে দেখা হচ্ছে। এখনো তো হাতে সময় রয়েছে। দেখা যাক”।

এছাড়াও অনিয়ম ঠেকাতে একটি স্কুলের শিক্ষকদের পার্শ্ববর্তী অন্য কোন স্কুলে পরিদর্শক হিসেবে পাঠানো যেতে পারে।তবে যেহেতু হোম সেন্টারে পরীক্ষা নেওয়া হয়েছে তাই কতটা শিক্ষক অদল বদল করা যাবে তা নিয়ে প্রশ্ন থেকেই যাচ্ছে।

এই প্রসঙ্গে সৌদীপ্ত বাবুর স্পষ্ট কথা,”ইনভিজিলেশন নিয়ে এখনও সংসদের তরফে কিছু বলা হয়নি।ওই স্কুলের শিক্ষকরা এই পরিদর্শক হবেন নাকি বাইরের স্কুলের শিক্ষকরা পরিদর্শক হবেন সে সম্পর্কে এখনো কিছু জানা যায়নি। অন্য স্কুলের শিক্ষকদের অপরিচিত স্কুলে পরিদর্শক হিসেবে পাঠালে অসুবিধা হতে পারে”।

Advertisement
Click to comment

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Trending