পেঁপে দিয়ে সহজ ঘরোয়া পদ্ধতিতে বানিয়ে দেখুন মুসুরির ডালের এই রেসিপি, খেলে লেগে থাকবে মুখে

নিজস্ব প্রতিবেদন: পেঁপে এমন একটি জিনিস যা দিয়ে নানান ধরনের সবজি তৈরি করা যেতে পারে। কম-বেশি আপনারা হয়তো অনেকেই পেঁপে দিয়ে তৈরি নানান রকমের পদ খেয়েছেন। আজকের এই বিশেষ প্রতিবেদনেও আমরা পেঁপে দিয়ে তৈরি একটি সুস্বাদু রেসিপি আপনাদের সঙ্গে শেয়ার করে নেব যা গরম ভাতের সাথে খেতে একেবারে দারুন লাগবে। এই রেসিপিটি হল পেঁপে দিয়ে মুসুরির ডাল। খুব সহজেই কিন্তু অল্প সময়ের মধ্যে এই রান্নাটি বাড়িতে তৈরি করে নেওয়া যেতে পারে। তাহলে সময় নষ্ট না করে প্রতিবেদনের মূল পর্বে যাওয়া যাক।

পেঁপে দিয়ে মুসুরির ডাল তৈরির পদ্ধতি:

১) রান্নাটি করার জন্য আপনাদের ছোট এক বাটি মুসুর ডাল নিয়ে নিতে হবে। তারপর ভালো করে জল দিয়ে ডাল ধুয়ে নিন। অন্ততপক্ষে পাঁচ থেকে ছয় বার জল পাল্টে ধুয়ে নেবেন। তারপর একটি প্রেসার কুকারে ডালটা দিয়ে বড় বাটির দেড় বাটি পরিমাণ জল দিয়ে দেবেন। মিডিয়াম ফ্ল্যেমে দুটি সিটি দিয়ে এবার ডালটাকে সেদ্ধ করে নিন। কুকার ঠান্ডা হবার পর আপনাদের ঢাকনা খুলে নিতে হবে।

তারপর ডাল কেমন সেদ্ধ হয়েছে দেখে নিয়ে এটাকে অন্য পাত্রে ঢেলে নিন। এই কুকারের মধ্যেই লম্বা লম্বা করে কেটে রাখা পেঁপে সেদ্ধ করার জন্য দিয়ে দিতে হবে। জল দিয়ে মিডিয়াম ফ্লেমের তিনটে সিটি দিয়ে পেঁপে সেদ্ধ করে নিন। ডালের সাথেই পেঁপে গুলোকে ঢেলে নেবেন।

২) দ্বিতীয় ধাপে কড়াইতে ফোড়নের জন্য সামান্য পরিমাণে রান্নার তেল দিয়ে দিন। এরমধ্যে দুটো শুকনো লঙ্কা, ১টি তেজপাতা এবং এক চামচ পাঁচফোড়ন যোগ করে দিন। এগুলোকে কিছুক্ষণ নাড়াচাড়া করে চার থেকে পাঁচটি রসুন কুচি এবং ১ টা মাঝারি মাপের কুচনো পেঁয়াজ দিন। হালকা ভাজা হয়ে আসলে সামান্য আদা কুচি ও ছোট ১ চামচ হলুদ গুঁড়ো যোগ করুন। কিছুক্ষণ নাড়াচাড়া করে পেঁপে সহ ডাল এর মধ্যে দিয়ে দিতে হবে। সামান্য গরম জল দিয়ে দিন। ডাল খুব বেশি ঘন লাগলে তাহলেই আরো একটু জল ব্যবহার করবেন।

৩) দেখবেন কিছুক্ষণ নাড়াচাড়া করার পরেই ধীরে ধীরে গরম হয়ে ডাল ফুটতে শুরু করে দিয়েছে। এরপর এতে কুচোনো ধনেপাতা ছড়িয়ে দিন। বেশ কিছুক্ষণ সময় এরপর আপনাদের ভালো করে ডাল ফুটিয়ে গরম গরম নামিয়ে নিতে হবে। ভাতের সাথে পেঁপে দিয়ে তৈরি এই মুসুরির ডাল যদি আপনারা পরিবেশন করেন বাড়ির সদস্যরা কিন্তু রীতিমতন চেটেপুটে খাবে। অসাধারণ এই রেসিপিটি আপনাদের কেমন লাগলো তা অবশ্যই জানাতে ভুলবেন না। রান্না সংক্রান্ত এই ধরনের আরো টিপস পেতে আমাদের অন্যান্য প্রতিবেদন গুলির উপর নজর রাখতে পারেন।

Back to top button