পুজোর মধ্যে বাড়িতেই খুব সহজেই অল্প সময়ে করে দেখুন এই ৫টি দারুণ হেয়ার স্টাইল, লাগবে এতোটাই সুন্দর যে তাকাবে সবাই!

নিজস্ব প্রতিবেদন:- আজ চতুর্থী। আর মাত্র দিন দুয়েকের মধ্যেই শুরু হয়ে যাবে বাঙালির সবথেকে বড় উৎসব দুর্গাপূজা। মন্ডপ থেকে শুরু করে সব জায়গাতেই চলছে শেষ পর্যায়ের প্রস্তুতি। শহরের বড় বড় পূজা মন্ডপ গুলিতে ইতিমধ্যেই কিন্তু প্রতিমা চলে এসেছে। এমনকি প্রতিমা দর্শনেও অংশগ্রহণ করতে শুরু করে দিয়েছেন দর্শনার্থীরা। পুজো মানেই জমিয়ে খাওয়া-দাওয়া আর দেদার আড্ডা। এছাড়াও নতুন জামা কাপড় বা সাজগোজের কথাও কিন্তু এখানে আমরা উল্লেখ করতে পারি।

আজকের এই বিশেষ প্রতিবেদনে আমরা মহিলাদের জন্য দুর্গাপূজো স্পেশাল পাঁচটা সহজ বান হেয়ার স্টাইল সম্পর্কে আলোচনা করতে চলেছি। যারা এই পুজোর কয়েকদিন জমিয়ে ঘোরাফেরা করার প্ল্যান করেছেন তারা কিন্তু একটু আলাদা ধরনের লুক নিয়ে আসার জন্য অবশ্যই এই হেয়ার স্টাইল গুলি ট্রাই করে দেখতে পারেন। চলুন তাহলে আর অপেক্ষা না করে আজকের এই বিশেষ প্রতিবেদনটি শুরু করা যাক।

  • পুজো স্পেশাল পাঁচটি বান হেয়ার স্টাইল:

১) যে কোন হেয়ার স্টাইল শুরু করার আগেই কিন্তু ভালো করে চুল আপনাদের কম্ব করে নিতে হবে অর্থাৎ আচড়ে নিতে হবে। প্রথম হেয়ার স্টাইল টি করতে গেলে সম্পূর্ণ সামনের দিকের চুল হালকা করে পাফ রেখে পেছনে ধরতে হবে। এরপর চুলের সামনের অংশে একটু স্টাইলিশ লুক দেখানোর জন্য লক্স বের করে রাখতে পারেন। চুলের পিছনের অংশে যে চুলগুলিকে নিয়ে গিয়েছেন সেগুলিকে ভালো করে সরু ক্লিপ দিয়ে আটকে দিতে হবে।

তারপর আপনাকে পেছনের দিকে পনিটেল করে নিতে হবে। সবশেষে একটা হেয়ার বান নিয়ে তার উপরে এই পনিটেলটাকে ঘুরিয়ে পেচিয়ে নিতে হবে। যে কোন সাইড ক্লিপ দিয়ে ভালো করে জায়গাটাকে আটকিয়ে নিন। যেকোনো শাড়ির সাথেই কিন্তু আপনারা অসাধারণ এই হেয়ার স্টাইলটি দিতে পারেন। বাজারে অনেক রেডিমেড গাজরা কিনতে পাওয়া যায় সেটা যদি পেছনের খোপার মধ্যে দিয়ে দিতে পারেন তাহলে কিন্তু দেখতে আরো দারুন লাগবে।

২) দ্বিতীয় এই হেয়ার স্টাইলটি করার জন্য প্রথমেই হেয়ার কম্ব করে নিয়ে একদিকে সিঁথি করে নিতে হবে। এবার সামনের দিকের চুলের অল্প একটু অংশ নিয়ে আপনাদেরকে রোল এন্ড টুইস্ট করে নিতে হবে। মোটামুটি কানের পাশ পর্যন্ত আপনারা এটা করবেন। আপনাদের কপাল বড় হয়ে থাকে সেক্ষেত্রে কিন্তু এই হেয়ার স্টাইলটি আপনারা একটু ঢিলা করে করবেন। রোল এন্ড টুইস্ট করে একটা ক্লিপ দিয়ে আটকে দিন। ঠিক একই রকম ভাবে চুলের অন্যদিকেও আপনারা এটা করে নিন।

এবার পেছনের দিকে সম্পূর্ণ চুলের মধ্যে কিছুটা অংশ নিয়ে আপনাদের একটা পনিটেল বানিয়ে নিতে হবে। যে বাদ বাকি চুলটা আছে সেটাকে উপর দিক থেকে ক্রিসক্রস করে একটা হালকা রবারব্যান্ড দিয়ে আটকিয়ে নিতে হবে। তারপর এভাবে করার পরেই হালকা ঘুরিয়ে ক্লিপ দিয়ে আটকে একটা গাজরা বেঁধে নিলেই কিন্তু দারুন লাগবে। সপ্তমী, অষ্টমী, নবমী বা দশমীর যে কোনদিন কিন্তু আপনারা এই হেয়ার স্টাইলটি ট্রাই করতে পারেন। তবে অবশ্যই কিন্তু হেয়ার স্টাইলটা শাড়ির সাথে ট্রাই করবেন।

৩) তৃতীয় হেয়ার স্টাইলটি করার জন্য চুল কম্ব করে উপরের অংশের চুল গুলিকে পার্টিশন করে ভাগ করে নিতে হবে। হালকা করে পাফ করে নিতে হবে। তারপর হেয়ার পিন দিয়ে এটাকে সেট করে নিন। একই রকম ভাবে এখানেও আপনাকে পেছনের অংশের চুল প্রথমে সিম্পল পনিটেল করে নিতে হবে। তারপর হালকা করে দুটো অংশকে ভাগ করে ঘুরিয়ে নিতে হবে। এটা কিন্তু একটা খুব সুন্দর মেসি বান হেয়ার স্টাইল। দুদিকেই এরকম ভাবে ঘুরিয়ে নেওয়ার পরে গাজরা বেঁধে দিলেই কিন্তু হেয়ার স্টাইল সম্পূর্ণ হয়ে যাবে।

৪) আজকের এই হেয়ার স্টাইলটি করার জন্য আপনাকে সামনের দিকে ভালোভাবে একটি পাফ আর পেছনের দিকে পনিটেল করে নিতে হবে। ব্যাককম্ব করে আপনাদের পনিটেলটিকে ভেতরের দিকে রোল করে নিতে হবে। এটাকে পেছনের দিকে রোল করে নিতে হবে। ঠিক একই রকম ভাবে নিজের বাকি থাকা চুলটি কেউ কিন্তু আপনাকে নিচের দিকে রোল করে নিতে হবে। তারপর খুব ভালোভাবে সাইড ক্লিপ দিয়ে এটাকে আটকে দিন। ইউ পিন যেগুলো থাকে সেটা ব্যবহার করে দুটো অংশের রোলকেই কিন্তু আপনাদেরকে জয়েন করে নিতে হবে। শাড়ির সাথে মানানসই যে কোন গজরা আপনারা কিন্তু এখানে চুলে ব্যবহার করতে পারেন।

৫) আজকের প্রতিবেদনের শেষ হেয়ার স্টাইল এর কথা এবারে আলোচনা করা যাক।এই হেয়ার স্টাইলটি করার জন্য প্রথমেই মাথার সামনে সুন্দরভাবে আপনাদের একটা পাফ করে নিতে হবে। তারপর পেছনে একটা লুজ পনিটেল করে নিন। তারপর হালকা করে চুলটাকে তুলে আপনাদের পনিটেল টাকে ভেতরের দিকে ঢুকিয়ে দিতে হবে। এভাবে টুইস্ট করে ভেতরে ঢুকিয়ে দেওয়ার পর আপনাদের ক্লিপ আটকে দিতে হবে যাতে চুলগুলি খুলে না যায়। ব্যাস তাহলেই হয়ে গেল এই হেয়ার স্টাইল টাও।

আজকের প্রতিবেদনের এই পাঁচটা হেয়ার স্টাইলের মধ্যে আপনাদের কোন হেয়ার স্টাইলটি সবথেকে বেশি ভালো লাগলো তা কিন্তু অবশ্যই আমাদের সঙ্গে প্রতিবেদনের কমেন্ট বক্সে শেয়ার করে নিতে ভুলবেন না।

Back to top button