নিউজ

‘বেশি অহংকার ভালো না, আপনারও কিন্তু রানু মন্ডলের মতই অবস্থা হবে’! বাদাম গানের স্রষ্টা ভুবন বাদ্যকরকে উপদেশ দিলেন নেটিজেনরা।

নিজস্ব প্রতিবেদন:কথাতেই রয়েছে অহংকার পতনের মূল কারণ। এই অহংকারের কারণেই নিমেষে কালের গভীরে হারিয়ে গিয়েছিলেন একদা জনপ্রিয় রানু মন্ডল। রানাঘাট রেল স্টেশন এর বাসিন্দা ছিলেন তিনি। কিন্তু তার গানের গলা ছিল অসামান্য।

অতীন্দ্র চক্রবর্তী নামক এক ইঞ্জিনিয়ার যুবকের সহায়তায় তার গান সোশ্যাল-মিডিয়ায়-ভাইরাল হয়ে ওঠে। এতটাই জনপ্রিয়তা পান তিনি যে বলিউডে পর্যন্ত পৌঁছে যান। বলিউডের জনপ্রিয় সংগীত পরিচালক হিমেশ রেশমিয়ার সঙ্গে প্লেব্যাক করেছিলেন তিনি।

কিন্তু পরবর্তীতে ধীরে ধীরে তার মধ্যে অহংকার এবং আত্মাভিমান জমতে থাকে। যার ফলস্বরুপ এমন কিছু ব্যবহার তিনি শুরু করেন যা তাকে নিচে নামিয়ে আনে।

বর্তমানে নেট মাধ্যমের মানুষদের কাছে একটি হাসির খোরাকে পরিণত হয়েছেন রানু মন্ডল।সোশ্যাল মিডিয়ায় তার যে কোন ছবি বা ভিডিও মানুষকে শুধু হাসতেই বাধ্য করে।তাই এবারে রাতারাতি কাচা বাদাম গানের মাধ্যমে ভাইরাল হওয়া ভুবন বাবুকে সমঝে থাকার উপদেশ দিলেন নেটিজেনরা।

প্রসঙ্গত সম্প্রতি ভুবন বাবু জানিয়েছেন বাদাম বিক্রি করে তিনি অত্যন্ত জনপ্রিয় হয়ে গিয়েছিলাম তাই তিনি আর বাদাম বিক্রি করতে চান না। এমন কি জানা যায় একটি জনপ্রিয় ইউটিউব চ্যানেলের তরফ থেকে তিন লক্ষ টাকার চুক্তিপত্রে সই করেছেন তিনি।

এই প্রসঙ্গে জানার পরেই সোশ্যাল মিডিয়ায় নেটিজেনদের একটি বড় অংশ তাকে মাটিতে পা রেখে চলার কথা বললেন। কারণ অতিরিক্ত অহংকার এর কারণেই রানু মন্ডল এর পতন হয়েছিল।

সম্প্রতি ভুবন বাবুও যে রকম ব্যবহার করতে শুরু করেছেন তাতে যেকোনো মুহূর্তেই নেট দুনিয়ার মানুষ তাকে নিচে নামিয়ে আনতে পারে। তাই অহংকার না করে বাদাম কাকুকে আদ্যোপান্ত মাটির মানুষ থাকার পরামর্শ দিয়েছেন নেটিজেনরা।

Leave a Reply

Your email address will not be published.

Back to top button