গোলাপ ফুলের ও বসে রয়েছে অতি বিরল প্রজাতির নীল রঙের সাপ! প্রকাশ্যে আসতেই তুমুল ভাইরাল হল ভিডিও।

গোলাপ ফুলের ও বসে রয়েছে অতি বিরল প্রজাতির নীল রঙের সাপ! প্রকাশ্যে আসতেই তুমুল ভাইরাল হল ভিডিও।

নিজস্ব প্রতিবেদন:পৃথিবীর বিষধর প্রজাতির মধ্যে অন্যতম সাপ। তবে অনেক সাপ রয়েছে যাদের কোনো রকমের বিষ থাকে না। কিন্তু তবুও অনেক মানুষ স্বভাব সিদ্ধ কারণে এই প্রজাতিটিকে ভয় পেয়ে থাকেন।

সম্প্রতি সোশ্যাল মিডিয়ায় একটি নীল সাপের ভিডিও বেশ ভাইরাল হয়ে উঠেছে। মখমলের মতো দেখতে এই সাপটিকে দেখে রীতিমত অবাক হয়ে গিয়েছেন নেটিজেনরা।মস্কোর একটি চিড়িয়াখানায় লাল ফুলের সঙ্গে এই সাপটিকে দেখতে পাওয়া গিয়েছে।

প্রসঙ্গত দিন কয়েক ধরেই সোশ্যাল মিডিয়ায় একটি ভাইরাল ভিডিও লক্ষ্য করা যাচ্ছে। এখানে মস্কোর একটি চিড়িয়াখানায় লাল ফুলের সঙ্গে জড়িয়ে শুয়ে থাকতে দেখা যাচ্ছে নীল রঙের এই সাপটিকে। এটি ব্লু পিট ভাইপার।

দেখতে শান্তশিষ্ট মনে হলেও এর মত বিষাক্ত প্রাণী পৃথিবীতে খুব কম রয়েছে। এর একটি ছোবলেই খুব সহজে মানুষ পরলোক প্রাপ্ত হতে পারে। জানা যাচ্ছে এই সরীসৃপটি মূলত হোয়াইট লিফট ভাইপার শ্রেণীর অন্তর্ভুক্ত। এদের প্রকৃত বাসস্থান ইন্দোনেশিয়ায়। নীল রং ছাড়াও এদের সবুজ রঙে পাওয়া যায়।

মস্কোর চিড়িয়াখানার জেনারেল দিরেক্টর এই প্রসঙ্গে জানিয়েছেন এই ধরনের নীল সাপও সবুজ ছানাদের জন্ম দিতে পারে। এই ভাইপার দের বিষ খুবই মারাত্মক। কোনভাবে সেই বিষ শরীরে প্রবেশ করে গেলে মুহুর্তেই তা মানুষের মৃত্যুর কারণ হতে পারে।

ইন্দোনেশিয়ার সুন্দা আইল্যান্ডে এই প্রজাতির প্রচুর সাপ দেখতে পাওয়া যায়।সাধারণত এই সাপের বিষ মাংস ছিঁড়ে ভিতরে ঢুকে যায় এবং প্রচন্ড যন্ত্রণা ছড়িয়ে পড়ে মানুষের শরীর জুড়ে।ধীরে ধীরে আক্রান্ত জায়গা থেকে শুরু করে শরীরের বিভিন্ন অঙ্গ-প্রত্যঙ্গ অকেজো হয়ে মানুষটির মৃত্যু হয়।

,

Leave a Reply

Your email address will not be published.