স’ঙ্গ’ম মুহূর্তে প্রি-ওয়েডিং ফটোশুটে মাতলেন যুবক-যুবতী, মুহূর্তে ভাইরাল বেশ কয়েকটি ছবি, রইলো ছবি

স’ঙ্গ’ম মুহূর্তে প্রি-ওয়েডিং ফটোশুটে মাতলেন যুবক-যুবতী, মুহূর্তে ভাইরাল বেশ কয়েকটি ছবি, রইলো ছবি

নিজস্ব প্রতিবেদন:– ” ন-গ্ন-তা যখন ফুটে ওঠে প্রি ওয়েডিং ফটোশুট এ ” । আমরা যত দিন যাচ্ছি তত উন্নত হচ্ছি এ কথা অস্বীকার করার কোনো উপায় নেই । কিন্তু তার সাথে সাথে কোথাও যেন হারিয়ে যাচ্ছে আমাদের সম্মান রক্ষার দায়িত্ব টা। অর্থাৎ নিজের সম্মান প্রাথমিকভাবে নিজেকে রক্ষা করতে হবে এই সাধারণ জ্ঞান টুকু কোথাও যেন আমরা হারিয়ে ফেলেছি ।এবং শুধু হারাচ্ছি তেমনটা নয় হারানো সাথে সাথে চ-ড়া দামে বিকোচ্ছি সোশ্যাল মিডিয়ায় ।

আজকালকার প্রজন্মের ছেলেমেয়েরা বেশির ভাগই নিজেদেরকে ফটোশুটের মাধ্যমে তুলে ধরার চেষ্টা করেন সোশ্যাল মিডিয়ায় । একটি সামান্য জামাকাপড় কিনলে বা নতুন কোন জায়গায় গেলে ফটোশুট অনিবার্য ।নিজে যেমন তার থেকে আরও বেশি কায়দায় সবার সামনে নিজেকে প্রকাশিত করার ভাবনা চিন্তা কোথাও যেন নতুন প্রজন্মের রক্তে মিশে গেছে। আর এইসব কায়দায় ফটোশুট করতে মাঝে মাঝে পড়তে হয় তাদেরকে সমা-লোচনার ঝ-ড় এর মুখে । কখনো কখনো আবার সম্মান রক্ষা ও দায় হয়ে ওঠে এই সব ফটোশুটের জন্য।

ইদানিংকালে একটি রীতি চলে আসছে নতুন প্রজন্মের হাত ধরে সেটি হল পরই ওয়েডিং শুট। অর্থাৎ বিয়ের আগে দম্প-তিরা ফটোশুট করে থাকেন । কিন্তু তার একটা ধরন থাকা দরকার। সোশ্যাল মিডিয়াতে এখন বেশ কিছু ছবি দেখা যাচ্ছে যেখানে নেই কোন ধরন । এমনকি সম্মানরক্ষার সাধারণ জ্ঞানটুকুও । প্রায় অর্ধনগ্ন অবস্থায় ছবি তুলতে দেখা গেছে কেরলের এক দম্পতিকে।

কেরলের ওই দম্পতি ক্যামেরার সামনে নিজেদের অন্তরঙ্গ মুহূর্তের ধাঁচে তুলেছেন বেশ কিছু ফটো এবং সেগুলি সোশ্যাল মিডিয়াতে শেয়ার করেছেন ।যার কারণে তাকে পড়তে হয়েছে সমালোচনা এবং উপহাসের মুখে। তবে এরকম ফটোশুট কেন করলেন সে ব্যাপারে প্রশ্ন করতেই তিনি যা উত্তর দেন তা আরও অবাক করার মতন । তারা জানায়, “আমার শরীরে এমন কোনও অংশ দেখা যাচ্ছে না যাতে বোঝায় আমি নগ্ন। এর চেয়েও বেশি খারাপ পোশাকে লোকজন ফটোশুট করে।  তবে ছবিগুলি ফেসবুকে পোস্ট করার সময় থেকে আমি ভয়াবহ মন্তব্যের ঝ-ড়ের কবলে পড়েছি”।

কোথাও যেন নতুন প্রজন্ম এই ধরনের ফটো বা এই ধরণের রীতিনীতিকে রপ্ত করে নিচ্ছে দিন দিন এবং এই সবের চাহিদা বেড়ে চলেছে তার সাথে সাথে ।


Leave a Reply

Your email address will not be published.