অফবিটনিউজ

পুজোর দুদিন আগে যেভাবে মেহেন্দি করলে মেহেন্দির রং টানা এক সপ্তাহ থাকবে গাঢ় ও সুন্দর!

নিজস্ব প্রতিবেদন :- আর মাত্র হাতে গোনা কয়েকটা দিন। তারপর এই অপেক্ষার অবসান। বাঙালির শ্রেষ্ঠ পুজোর দুর্গাপূজা প্রায় দোরগোড়ায়। এই অবস্থায় নিজেকে শ্রেষ্ঠ সাজিয়ে তুলতে মরিয়া ছেলে মেয়ে উভয়েই। অর্থাৎ নিজেকে অন্যান্য দিনের তুলনায় একটু আলাদা রকম ভাবে সবার সামনে তুলে ধরতে চেষ্টা করি আমরা সবাই। তার জন্য চলে নিরন্তন পরিশ্রম। তবে কোথাও যেন এই পরিশ্রম ছেলেদের তুলনায় মেয়েদের একটু বেশি হয়। তাই এখন থেকেই পার্লারে মধ্যে মেয়েদের ভিড় উপচে পড়ছে ।চুল কাটানো হেয়ার স্ট্রেট করা পেডিকিওর-মেনিকিওর আরো নানা কত কি ।তবে এসবের মাঝে যেটা না হলে চলে না সেটা হলো মেহেন্দি।

পুজো কিংবা বিয়ে বাড়ি মেহেন্দি মেয়েদের সাজগোজ এর মধ্যে একটি অন্যতম। কেউ কেউ এই মেহেন্দির রং টিকিয়ে রাখার জন্য অনেক পদ্ধতি চেষ্টা করেছে। কিন্তু কোথাও যেন হয়ে গেছে বিফল ।একদিন-দু’দিন রাখার পরেই মেহেন্দি রং হয়ে গেছে ফ্যাকাশে। কিন্তু আপনাদের সামনে বলতে চলেছি কিভাবে কোন পদ্ধতিতে মেহেন্দি পড়লে তার রঙ দীর্ঘস্থায়ী হবে ।

মেহেন্দি পরার আগে আপনাকে প্রথম হাতটি ভালো করে ধুয়ে নিতে হবে সাবান দিয়ে । তারপরে তা হাতের মধ্যে ইউক্যালিপটাস তেল লাগাতে হবে। এরপর আপনি আপনার পছন্দের ডিজাইনের মেহেন্দি পড়ুন হাতে । তারপর মেহেন্দি পুরোপুরি শুকিয়ে যেতে দিন ৷ ব্লো-ড্রায়ার ব্যবহার করবেন না ৷ হাত বেশে নাড়াচাড়াও করা উচিত নয় ৷ তবে গ্যাস ওভেনে হাত সেঁকতে পারেন ৷ এরপর ভালো মতন শুকিয়ে যাওয়া যাওয়া পর্যন্ত অপেক্ষা করুন। মেহেন্দি পরার উপযুক্ত সময় হচ্ছে রাত। রাতে মেহেন্দি পড়ে না সকাল অব্দি রেখে দিলে এর রং এর দীর্ঘস্থায়ী হয় ।দরকার হলে হাতে একটি প্লাস্টিক পড়ে নিন যাতে বিছানা নোংরা না হয় ।

এরপর সকালে উঠে লেবু আর চিনির জল দিয়ে ভালো করে ধুয়ে ফেলুন হাতটাকে। তারপরে মেহেন্দি উঠিয়ে ফেলুন হাত থেকে। দেখবেন যে রংটি আপনার হাতের মধ্যে ফুটে উঠেছে সেটি অন্যান্য মেহেন্দির তুলনায় অনেক গুলো ভালো। এর পাশাপাশি এই রং দীর্ঘস্থায়ী হবে । তাহলে আর শুধুমাত্র দীর্ঘস্থায়ী রঙের জন্য পার্লারে দৌড়াতে হবে না আপনাকে । বাড়িতে বসেই করতে পারেন মেহেন্দি ।

Leave a Reply

Your email address will not be published.

Back to top button