‘বিয়ের পর প্রথম পুজো, দীপঙ্করকে নিজের হাতে চিতল মাছের মুইঠ্যা রান্না করে খাওয়াবেন দোলন!

‘বিয়ের পর প্রথম পুজো, দীপঙ্করকে নিজের হাতে চিতল মাছের মুইঠ্যা রান্না করে খাওয়াবেন দোলন!

নিজস্ব সংবাদদাতা: প্রবীণ অভিনেতা দীপঙ্কর দে, সত্যজিৎ রায়ের ছবি জন অরণ্য (১৯৭৫) এবং গণশত্রু (১৯৯০) তে অভিনয় করার জন্য পরিচিত। টেলিভিশন এবং চলচ্চিত্র অভিনেত্রী দোলন রায় বহু বছর লিভ-ইন সম্পর্কে কাটিয়েছিলেন দীপঙ্করের সঙ্গে।

গত 16 জানুয়ারী কলকাতার একটি রেস্তোঁরায় একটি ব্যক্তিগত অনুষ্ঠানে তারা দুজনে বিবাহ সম্বদ্ধে আবদ্ধ হন। ‘জীবন সাথী’-নামক একটি ধারাবাহিকে একসঙ্গেই শ্যুটিং করছেন দোলন ও দীপঙ্কর। অনেকদিন পর এই সিরিয়ালের মাধ্যমে কাজে ফিরছেন দীপঙ্কর দে

এবার পুজোয় তাদের প্ল্যান সম্পর্কে জিজ্ঞেস করায়, দোলন জানান, “এবার পুজোয় নবরাত্রি করব ভাল করে। সিরিয়াসলি বলছি! এটা কোনও পুজো আদৌ? আমাদের বিয়ের পর প্রথম পুজো এটা। সবার যা কাটবে আমাদেরও তাই। কিছুই প্ল্যান নেই এবার। কোথাও তো যাওয়া নেই, ইভেন্টগুলোও নেই। তবে একবার মাকে দর্শন করতে তো নিশ্চয়ই যাব।”

পুজোর মেনু সম্পর্কে দোলন জানান, “আমি খুব অকেশানালি কন্টিনেন্টাল করি। তবে হ্যাঁ, স্পাইসি খেতেই ও বেশি পছন্দ করে। আমার হাতের রান্নার মধ্যে ওঁর সবচেয়ে প্রিয় চিতল মাছের মুইঠ্যা। সেটাই ওঁকে হয়তো এবার পুজোতে খাওয়াব। এছাড়াও মাটন খেতেও খুব ভালোবাসে। নিজে মাটন রাঁধতেও খুব ভালবাসে।”

কলকাতার পুজো প্রসঙ্গে তিনি জানান, “আগে আমাদের যাত্রার শো যখন থাকত, সেগুলো দশমীর পর থেকে শিডিউল থাকত। একবার খালি নবমীতে একটা প্রত্যন্ত গ্রামে শো ছিল। সে বার খুব মি-স করেছিলাম কলকাতার পুজো। তার পর থেকে পুজোয় কাজ, শো রাখি না আমরা।” বিয়ের পর প্রথম পুজো হয়তো ঘরে বসেই কাটাতে হবে। তবুও তারা এই করোনা ম-হা-মা-রী-র মাঝে শুটিং করছেন, এটাও তাদের দুজনকে মনের অনেকখানি কাছাকাছি ধরে রাখতে সাহায্য করছে।