পাগড়ি বিত’র্কের বলবিন্দর সিংয়ের স্ত্রীকে পুজোয় সালওয়ার সুট উপহার দিলেন মমতা, রহস্যের গন্ধ পাচ্ছে বিরো’ধীরা?

পাগড়ি বিত’র্কের বলবিন্দর সিংয়ের স্ত্রীকে পুজোয় সালওয়ার সুট উপহার দিলেন মমতা, রহস্যের গন্ধ পাচ্ছে বিরো’ধীরা?

নিজস্ব প্রতিবেদন:- সামনে একুশে ভোটকে মাথায় রেখে বিভিন্ন রাজনৈতিক দলের প্রস্তুতি ইতিমধ্যে তুঙ্গে। বর্তমান পরিস্থিতিকে মাথায় রেখেও কোথাও যেন দেখা গেছে অসাবধানতা ।অব্যাহত থেকেছে মিটিং-মিছিল জমায়েত। গত বৃহস্পতিবার বিভিন্ন ইস্যু নিয়ে কলকাতা রাজ পথে পা মিলিয়ে ছিলেন প্রায় ৫০ হাজার বিজেপি কর্মী । উদ্দেশ্য ছিল নবান্ন। যদিও তারা নবান্ন অব্দি পৌঁছাতে পারেনি। তার আগে তাদেরকে রাজ্য পুলিশের সাথে মোকাবিলা করতে হয় ।রীতিমতো ধুন্ধুমার পরিবেশ সৃষ্টি হয় হাওড়া কলকাতার বুকে ।

এই নবান্ন অভিযান কে নিয়ে তার পরবর্তী সময়ে উঠেছে বিভিন্ন তর্ক-বিত-র্কের ঝ-ড়। উঠেছে কটা-ক্ষের সুর । তবে যে বিষয়টি সবথেকে ন-জ-র কেড়েছে এই নবান্ন অভিযানে সেটি হল বল বান্দা সিং । নবান্ন অভিজানকারীদের মধ্যে বলবন্দরসিং নামে ওই অভি-যানকারী কাছ থেকে পুলিশ আগ্নে-য়াস্ত্র উদ্ধার করে। যদিও বিজেপির বক্তব্য ছিল সেটি একটি শান্তিপূর্ণ মিছিল হবে। কিন্তু শান্তিপূর্ণ মিছিলে আগ্নে-য়াস্ত্র কি করছে এরূপ প্রশ্ন ছিল অনেকের ।সেইমতো রাজ্য পুলিশ গ্রেফ-তার করে আর তারপরেই শুরু হয়ে যায় উত্তেজনা রাজ্য জুড়ে ।

এই বল বান্দর সিং কে ঘিরে আরও একটি উত্তে-জনা কারণ হলো তার পাগড়ী। পুলিশের সাথে ধ্বস্তা-ধ্বস্তি তার পাগলি খুলে যায়। যেটাকে ই-স্যু করে মাঠে নেমেছিল বিজেপি। অভিযোগ করা হয়েছিল যে ইচ্ছাকৃত ভাবে ধর্মকে আ-ঘা-ত করেছে রাজ্যের পুলিশ প্রশাসন ।যদি এরপর রাজ্যের পুলিশ প্রশাসনকে জানানো হয়েছিল যে তার সাথে ধ্ব-স্তাধ্ব-স্তি খুলে যায় তার পাগড়ী । ইচ্ছাকৃতভাবে কোন ধর্মকে বা কোন ধর্মীয় সম্প্রদায়ের আ-ঘা-ত করার উদ্দেশ্যে রাজ্য পুলিশের নেই এবং ছিল না। তবুও কোথাও যেন গেরুয়া শিবির মানতে নারাজ ছিল তাদের এই কথা ।

কিন্তু সম্প্রতি মুখ্যমন্ত্রী একটি টুইট বদলে দেয় পুরো চেহারাটা ।মুখ্যমন্ত্রীর তরফ থেকে জানানো হয়েছে যে বন্দর সিংকে মুক্তি দেওয়া হবে। তুলে নেওয়া হবে সমস্ত অভি-যোগ । এর পাশাপাশি বালবির সিং এর স্ত্রী জানিয়েছিলেন যে তার স্বামীকে মুক্তি না দিলে নবান্নের সামনে অনশনে বসবেন তিনি ।

এই ঘটনাকে কেন্দ্র করে টুইটে মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে ধন্যবাদ জানিয়েছে, দিল্লি শিখ গুরুদোয়ারা ম্যানেজমেন্ট কমিটির সভাপতি ও আকালি দলের মুখপাত্র মনজিন্দর সিং সিরসার। ৮ অক্টোবর বিজেপি‘‌নবান্ন অভিযান’‌ কর্মসূচিতে হাওড়া ময়দান থেকে আগ্নে-য়াস্ত্র–সহ গ্রেফ-তার করা হয়েছিল বলবিন্দরকে। আকালি দলের মুখপাত্র মনজিন্দর সিং সিরসা টুইটবার্তায়  মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়কে বিশেষ ধন্যবাদ জানিয়েছেন। এরপরই  ওই টুইটে তিনি আরও জানিয়েছেন যে, ‘মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় বলবিন্দর সিংয়ের স্ত্রী করমজিৎ কউরের জন্য দুর্গাপুজো উপলক্ষে একটি সালওয়ার সুট পাঠিয়েছেন।’