বাড়িতে সহজ পদ্ধতিতে আটা দিয়ে বানিয়ে ফেলুন গরম গরম স্ন্যাকস এর রেসিপি, রইলো পদ্ধতি

নিজস্ব প্রতিবেদন: সকালের জলখাবার হোক বা বিকেলের টিফিন প্রতিদিন কিন্তু একঘেয়ে যে কোন খাবার ভালো লাগেনা। মাঝেসাঝেই কিন্তু তাই স্বাদে পরিবর্তন আনার জন্য আমাদের নতুন কোন রান্না ট্রাই করা প্রয়োজন। বেশিরভাগ বাচ্চারাই কিন্তু একঘেয়ে রান্না খেতে প্রতিদিন একেবারে পছন্দ করেনা। তাই আজকের এই বিশেষ প্রতিবেদনে আমরা নিয়ে এসেছি এক কাপ গমের আটা দিয়ে তৈরি একটা অভিনব গরম গরম জলখাবারের রেসিপি

চলুন তাহলে আর সময় নষ্ট না করে কিভাবে স্টেপ বাই স্টেপ আপনারা এই রান্নাটি করবেন জেনে নেওয়া যাক। শুধুমাত্র জলখাবার বা স্ন্যাকস হিসেবে নয়, বাড়িতে অতিথি আসলেও কিন্তু আপনারা এটাকে সহজেই পরিবেশন করতে পারেন।। এমনিতেই উৎসবের মরশুম চলছে। স্বাভাবিকভাবেই এই সময়ে বাড়িতে অতিথিদের আনাগোনা লেগেই থাকে। সুতরাং চটজলদি আমাদের এই রেসিপি শিখে নিন এবং বানিয়ে নিন বাড়িতে।।

  • গমের আটা দিয়ে তৈরি গরম গরম বিশেষ স্ন্যাকসের রেসিপি:

১) যদি আপনারা সমোসা বা কচুরি খেতে পছন্দ করেন তাহলে এই রেসিপিটি আপনাদের জন্য একেবারেই আদর্শ। এই রেসিপিটি তৈরি করার জন্য আপনাদের প্রথমেই এক কাপ পরিমাণ গমের আটা নিয়ে নিতে হবে। চাইলে আপনারা কিন্তু ময়দার ব্যবহারও করতে পারেন।

এবার এই আটার মধ্যে আপনাদের দিয়ে দিতে হবে স্বাদমতো লবণ, জোয়ান, ২ চামচ তেল অথবা ঘি। এবারে সমস্ত উপকরণ আটার সাথে ভালো করে মিশিয়ে নেওয়ার পরে অল্প অল্প করে জল দিয়ে এটাকে আপনাদের মেখে নিতে হবে। চাপাটি তৈরি করার সময় সাধারণত যে রকম ডো তৈরি করা হয় এখানেও আপনাদের সেরকমই ডো তৈরি করে নিতে হবে। এরপর ১০ মিনিট সময় পর্যন্ত এই ডো ঢেকে আপনাদের রেখে দিতে হবে।

২) এবার আপনাদের নিয়ে নিতে হবে দুটি সেদ্ধ আলু। আলু কিন্তু অবশ্যই ঠান্ডা করে নেবেন। এবারে সামান্য পরিমাণে মটর ব্যবহার করে আপনাদের আলু গুলিকে স্ম্যাশ করে নিতে হবে। তারপর এর মধ্যে আধা চামচ পরিমাণ জিরা দিয়ে দিতে হবে। এছাড়াও দিতে হবে আধা চামচ মৌরি, আধা চামচ চিলি ফ্লেক্স, একটা মিডিয়াম সাইজের পেঁয়াজ কুচি, ধনেপাতা কুচি, স্বাদমতো লবণ, কাঁচালঙ্কা কুচি,হিং। চাইলে আপনারা কিন্তু লেবুর রস, আমচুর পাউডার আর সামান্য চিনিও ব্যবহার করতে পারেন। এবারে ভালোভাবে সমস্ত উপকরণ নাড়াচাড়া করে একটা মিশ্রণ আপনাকে তৈরি করে নিতে হবে।

অন্যদিকে আটা দিয়ে যে ডো তৈরি করেছিলেন সেটা নির্দিষ্ট সময় অন্তর খুলে আপনাকে আরো একটু মেখে নিতে হবে। এবার ডো থেকে ধীরে ধীরে লেচি কেটে নিন। সামান্য পরিমাণে শুকনো আটার প্রলেপ দিয়ে ধীরে ধীরে এটাকে আপনাদের বেলে নিতে হবে। তবে খুব বেশি পাতলা কিন্তু বেলবেন না।

৩) রুটি বেলে নেবার পরে যে পুর আপনারা আগে থেকে তৈরি করে রেখেছিলেন সেটাকে এর মধ্যে চামচ দিয়ে লাগিয়ে দিতে হবে। পাতলা একটা পুরের স্তর রুটির উপরে দিন। এবারে ধীরে ধীরে মুড়িয়ে নিয়ে একটা রোল তৈরি করে নিতে হবে। এবারে একটা চাকু নিয়ে রোলটাকে পিস পিস করে কেটে নিতে হবে। তারপর সেই টুকরো গুলিকে হালকা করে হাতে চাপ দিলেই কিন্তু টিকিয়ার মতন তৈরি হয়ে যাবে। এভাবে প্রত্যেকটি রুটিকেই কিন্তু আপনাদের ভালো করে বেলে টিকিয়া তৈরি করে নিতে হবে। আপনারা যদি রেসিপিটিকে একটু চটপটা তৈরি করতে চান তাহলে একটু ধনেপাতার চাটনি আর সস রুটি রোল করার আগে দিয়ে দিতে পারেন।

৪) সমস্ত টিকিয়া তৈরি হয়ে গেলে সেগুলিকে একটা প্লেটে তুলে রেখে দিন। অন্যদিকে একটা ছোট বাটির মধ্যে আপনাদের সামান্য পরিমাণে গমের আটা আর সাদা তিল নিয়ে নিতে হবে। পাশাপাশি এই মিশ্রণের মধ্যে যোগ করে দিন চিলি ফ্লেক্স আর লবণ। সমস্ত কিছু একসাথে মিশিয়ে হালকা করে জল দিয়ে একটা ব্যাটার তৈরি করুন। ব্যাটার যেন খুব একটা পাতলা না হয়ে যায়।

সর্বশেষ ধাপে করাইতে আপনাদের তেল গরম করে একটা একটা করে টিকিয়া এই ব্যাটারে ভালো করে ডুবিয়ে ভেজে নিতে হবে। ব্যাস তাহলেই তৈরি হয়ে গেল আজকের এই অসাধারণ রেসিপি। খুব সহজেই বিকেলের জলখাবারে আপনারা কিন্তু এটা পরিবেশন করতে পারেন। শিশু অথবা অতিথি সকলেরই কিন্তু এই খাবারটি খাওয়ার পর নিঃসন্দেহে মন ভালো হয়ে যাবে। এই ধরনের আরো রেসিপি সম্পর্কে জানতে হলে আমাদের পোর্টালের পাতায় নজর রাখতে থাকুন।

Back to top button