একদম দোকানের স্টাইলে দারুণ টেস্টি সন্দেশ এবার বানিয়ে নিন বাড়িতেই, রইলো সেই সহজ ঘরোয়া পদ্ধতি

নিজস্ব প্রতিবেদন:  বাঙ্গালীদের জন্য সন্দেশ এমন একটি খাবার যা শিশু থেকে বয়স্ক সকলেই কিন্তু কমবেশি খেতে পছন্দ করে থাকেন। বাজারের মিষ্টির দোকান গুলিতে আপনারা কিন্তু নানান ধরনের সন্দেশ খুব সহজেই পেয়ে যাবেন।তবে করোনা-আবহে আজকাল অনেকেই কিন্তু বাজারের জিনিস খাওয়া বন্ধ করে দিয়েছেন।

আজকের এই বিশেষ প্রতিবেদনে আমরা তাই আপনাদের জন্য বাড়িতেই বানানো একটি সন্দেশের রেসিপি শেয়ার করে নিতে চলেছি যা ইচ্ছে মতন আপনারা বানিয়ে খেতে পারবেন, এমনকি অতিথি আসলেও কিন্তু পরিবেশন করতে পারবেন।। চলুন তাহলে আর সময় নষ্ট না করে কিভাবে আপনারা এই সন্দেশটি তৈরি করতে পারেন সেই সম্পর্কে বিস্তারিত জেনে নেওয়া যাক।

বাড়িতে সন্দেশ তৈরীর বিশেষ রেসিপি:

১) সন্দেশ তৈরি করার জন্য একটি কড়াইতে আপনাদের প্রথমেই সামান্য জল দিয়ে দিতে হবে। এবার খুন্তির সাহায্য আপনারা এই জলটাকে করাইতে ছড়িয়ে দিন। কড়াইতে আপনাদের দুধ দিয়ে দিতে হবে। এভাবে যদি আপনারা জল ছড়ানোর পরে দুধ দিয়ে থাকেন তাহলে কিন্তু কড়াইতে লেগে যাবে না। মোটামুটি হাফ লিটার পরিমাণ দুধ আপনারা ব্যবহার করতে পারেন। আঙ্গুল ডোবানো যাচ্ছে এরকম গরম করে নিন দুধটাকে। খুব হালকা গরম যখন দুধটা থাকবে তখন আপনাদের এর মধ্যে ৪০ গ্রাম পরিমাণে গুঁড়ো দুধ দিয়ে দিতে হবে।

আপনারা কিন্তু শুধুমাত্র লিকুইড দুধ ব্যবহার করেও এটা করতে পারেন। যতক্ষণ পর্যন্ত না দুধ ফুটে উঠছে ততক্ষণ অপেক্ষা করতে থাকুন। দুধ কিছুটা ফুটে উঠতে শুরু করলে এর মধ্যে আপনাদের চিনি দিয়ে দিতে হবে।। গুঁড়ো দুধের পরিমাণ এর সঙ্গে সামঞ্জস্য বজায় রেখে এখানে আপনাদের ৪০ গ্রাম পরিমাণ চিনি দিতে হবে।। প্রসঙ্গত যদি আপনারা গুড়ো দুধ ব্যবহার করে থাকেন সেক্ষেত্রে চিনির পরিমাণ একটু কম থাকলেও ক্ষতি নেই, কারণ গুঁড়ো দুধের মধ্যেই কিন্তু মিষ্টি ভাব থাকে।

২) যতক্ষণ পর্যন্ত না দুধ ঘন হয়ে আসছে আপনাদেরকে গ্যাস একেবারে হাই ফ্লেমে রেখে দিতে হবে।। মোটামুটি পাঁচ মিনিট জাল দিলেই কিন্তু আপনাদের দুধ ঘন হয়ে আসবে। এবার একটি ছোট বাটিতে সামান্য জল নিয়ে তাতে কর্নফ্লাওয়ার গুলে নিতে হবে। এই কর্নফ্লাওয়ার মেশানো জল দুধের মধ্যে দিয়ে দিন।। কনফ্লাওয়ার দেওয়ার পরে কিন্তু দুধ খুব তাড়াতাড়ি ঘন হয়ে আসবে। পাশাপাশি এরকমভাবে কর্নফ্লাওয়ার ব্যবহার করলে কিন্তু সন্দেশ অনেকটাই মসৃণ হবে।

দুধটা যখন জাল হবে তখন কিন্তু আপনাদের অনবরত নাড়তে থাকতে হবে। বেশ ভালো মাখোমাখো হয়ে আসলে আপনাদের এর মধ্যে এলাচের গুঁড়ো দিয়ে দিতে হবে।। অনেকেই কিন্তু এলাচের গুঁড়ো শেষে মেশায়, তখন কিন্তু ভালোভাবে মিশতে চায় না। তাই যখন দেখবেন যে দুধের মধ্যে জলীয় ভাব হালকা হলে অবশিষ্ট আছে তখনই কিন্তু আপনাদের এটা দিয়ে দিতে হবে।

৩) পরবর্তী ধাপে যখন দেখবেন যে সন্দেশের মধ্যে জলীয়ভাব অনেকটাই চলে গেছে তখন কিন্তু আপনাদের একেবারে গ্যাসের ফ্ল্যেম লো করে দিতে হবে।। এবার এই ঘন মিশ্রণটিকে আপনারা একবার যাচাই করে দেখে নেবেন যে কতটা আঠালো অবস্থায় রয়েছে। এটাকে একটা থালার মধ্যে তুলে নিয়ে ঠান্ডা করে নিতে হবে। তারপর মিনিট খানেক সময় পর হাত দিয়ে আলতো করে মেখে নিন।

এরপর চাইলে হাত দিয়ে গোল করে পেড়া অথবা সন্দেশের ছাপ দিয়ে আপনারা এটিকে তৈরি করে নিতে পারেন।। একেবারে দোকানের মতন কায়দায় তৈরি বাড়ির এই সন্দেশ আপনাদের কেমন লাগলো তা আমাদেরকে জানাতে ভুলবেন না। এই ধরনের আরও রেসিপি সম্পর্কে জানতে আমাদের অন্যান্য প্রতিবেদন গুলির উপর নজর রাখতে থাকুন।।

Back to top button