নিউজপলিটিক্সপশিমবঙ্গ

“বামপন্থী যুব ছাত্ররাই সর্বপ্রথম নবান্ন অভিযানের পথ দেখিয়েছে, আমরাও অনেক জলকামান দেখেছি” সূর্যকান্ত মিশ্র

নিজস্ব প্রতিবেদন :-বিভিন্ন ইস্যু নিয়ে প্রায় ৫০ হাজার কর্মী নিয়ে নবান্ন অভিযান এর পথে বৃহস্পতিবার হেঁটেছিলেন বিজেপি । রাজ্যের বিভিন্ন জায়গা থেকে বিজেপি নেতা মন্ত্রী এবং কর্মীরা জ’মায়েত করেছিল কলকাতায়। এবং মূলত চারটি ভাগে ভাগ হয়ে তারা অভিযান চালায় । তবে শেষ অবধি পৌঁছাতে পারেনি নবান্নের ধরে কাছে । তার আগেই মুখোমুখি হতে হয়েছিল রাজ্যের পুলিশ প্রশাসনের সাথে । যদিও রাজ্যে তরফ থেকে মোতায়েন করা হয়েছে অতি’রি’ক্ত পুলিশ বাহিনী । দেওয়া হয়েছিল ত্রিস্তরীয় ব্যারিকেড ।

এই অভিযানের নেতৃত্ব দেন দিলীপ ঘোষ সায়ন্তন বসু তেজস্বী সূর্য রাজু বন্দ্যোপাধ্যায়ের সহ বিশিষ্ট বিশিষ্ট নেতা এবং মন্ত্রীরা। তবে প্রথমেই পুলিশদেরকে দেখে ইটবৃষ্টি শুরু হয় বলে জানা গেছে । এবং তা প্র’তি’হত করতে পুলিশ প্রথমে কাঁদানে গ্যাস এবং পরে জলকামান ব্যবহার করেছে । তাতে ছ’ত্রভ’ঙ্গ হয়ে যায় বিজেপির মিছিল । এবং এই জলকামানের কেমিক্যাল ব্যবহারের অভিযোগ উঠেছে বিজেপির পক্ষ থেকে।

সাংবাদিকদের মুখোমুখি হয়েসিপিএম এর রাজ্য সম্পাদক সূর্যকান্ত মিশ্র এ ব্যাপারে মুখ খুললেন । এবং তার সাথে তিনি বিজেপি এবং তৃণমূল কে এক হাত নিলেন। তিনি বলেন “এ রকম অনেক জলকামান আমাদের ছাত্র-যুব সর্মথকরা দেখেছে। আমাদেরসময় কাঁ’দা’নে গ্যাসের শে’ল ফাটিয়ে দেওয়া হয়েছিল চোখ জ্বা’লা করছিল সামনে কিছু দেখতে পাচ্ছেন না তবু আমরা ল’ড়া’ই জা’রি রেখেছিলাম”।

এর পাশাপাশি তিনি বিজেপি মোকাবিলা করতে শা’স’কদলের যে অ’ক্ষ’ম সেই প্রসঙ্গ তুলে আনেন । তিনি বলেন যে ” আমরাই প্রথম নবান্ন অভিযান এর পথ দেখেছিলাম এবং সেই পথেই হাঁটছে বিজেপি। ” তবে তিনি নবান্ন ব’ন্ধ রাখা নিয়ে ক’টা’ক্ষ করেন । তিনি বলেন ” নবান্ন তাম মেরে চলে গেলেন মুখ্যমন্ত্রী । এবং তার সাথে সাথে বিজেপির পথ আরো প্রশস্ত করে দিলেন ” । বিজেপি কে মোকাবিলা করার ক্ষ’ম’তা শাসক দলের নেই , একমাত্র আছে সিপিএম এর ।”

Leave a Reply

Your email address will not be published.

Back to top button