“চকলেট নিয়েছি, ইলেকশনের টিকিট নয়!”, মমতার পা ছুঁয়ে প্রণাম করায় কটাক্ষের পাল্টা জবাব স্বস্তিকার

নিজস্ব প্রতিবেদন: বিগত কয়েক বছর ধরেই প্রায় মাস খানের সময় ধরে দুর্গাপুজোর অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হচ্ছে বাংলায়। মহালয়ার অনেক আগে থেকেই শুরু হয়ে যায় দুর্গা পূজার অনুষ্ঠান এবং বিজয়া দশমীর অনেকটা পরবর্তী সময় পর্যন্ত এটা চলতে থাকে। এমনকি পুজোর রেশ ধরে রাখতে কিছু বছর ধরেই কিন্তু রেড রোডে সমস্ত মন্ডপের প্রতিমাদের নিয়ে রীতিমত কার্নিভালের আয়োজন করে থাকেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়।

চলতি বছরে ইউনেস্কোর বিশেষ স্বীকৃতি পেয়েছে বাঙালির দুর্গাপুজো।এমতাঅবস্থায় গত শনিবার রেড রোডে বিশাল কার্নিভালের আয়োজন হয়েছিল।বর্ণাঢ্য সন্ধ্যার সেই অনুষ্ঠানে উত্তর কলকাতা, দক্ষিণ কলকাতা এবং সল্টলেক সহ মোট ৯৫ টি দুর্গাপুজা কমিটি শামিল হয়েছিল। শুধুমাত্র তাই নয় মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের আয়োজিত এই অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন টলিউডের একঝাঁক সেলিব্রেটি।

এদিনের সেলিব্রিটিদের মধ্যেই ছিলেন জনপ্রিয় অভিনেত্রী স্বস্তিকা মুখোপাধ্যায়। প্রসঙ্গত এই বছর প্রথম তিনি কার্নিভালের অনুষ্ঠানে যোগদান করেছিলেন। তারপর সেই সমস্ত ছবি সোশ্যাল মিডিয়ায় শেয়ার করে নেন নায়িকা। ব্যক্তিগত জীবনে কিন্তু রাজনীতি থেকে অনেকটাই দূরে রয়েছেন এই নায়িকা। এমনকি শাসক দল তৃণমূল কংগ্রেসের সঙ্গেও অনেকটাই দূরত্ব বজায় রেখে চলেন তিনি। এমনকি বহুবার অন্যায়ের বিরুদ্ধে সরব হয়ে প্রতিবাদ করতে দেখা গিয়েছে তাকে। এদিনের রেড রোডের কার্নিভাল অনুষ্ঠানে মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের পা ছুয়ে স্বস্তিকাকে প্রণাম করতে দেখেই রীতিমত অবাক নেটিজেনরা।

সোশ্যাল মিডিয়ায় সেই সমস্ত ছবি শেয়ার করে নিতেই বেশিরভাগ মানুষের কটাক্ষ এবং সমালোচনার মুখে পড়ে যান নায়িকা। তার সেই পোস্টের কমেন্ট বক্সে অনেকে তো তাকে রীতিমত ‘মেরুদন্ডহীন’ বলেও উল্লেখ করে দেন।।এমনকি অভিনেত্রী শ্রীলেখা মিত্রও স্বস্তিকাকে আখ্যা দিলেন ‘খামতি দিদিমণি’। প্রথম দিকে যদিও এই ব্যাপারে কোন রকমের মন্তব্য করতে দেখা যায়নি স্বস্তিকাকে।

তবে শেষ পর্যন্ত কটাক্ষের ঝড় তার দিকে ক্রমাগত ধেয়ে আসতেই মুখ খুলতে বাধ্য হলেন তিনি। নেট মাধ্যমে আরও একটি পোস্ট করে কড়া ভাষায় সমালোচকদের উদ্দেশ্যে অভিনেত্রী জানান, “মুখ্যমন্ত্রীর সঙ্গে দেখা হওয়ায় তাঁকে নমস্কার করে বিজয়া জানানোটা ভদ্রতা, সৌজন্য। আমায় দুটো চকলেট দেওয়াটা ওনার ইচ্ছে, সেটা খেয়ে নেওয়াটা আমার’।

সঙ্গে আরো যোগ করে স্বস্তিকা লিখেছেন, “চকলেট নিয়েছি ইলেকশন টিকিট নয়, চকলেট খেয়েছি মোটা টাকার ঘুষ নয়। আমরা একটা সভ্য দেশে বাস করি, বর্বর নই। কাল দেশের প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে দেখা হলেও একই ভাবে নমস্কার করব কারণ সেটাই ঠিক।পৃথিবীর সমস্ত বিষয় নিয়ে আমায় জিহাদ ঘোষনা করতেই হবে না হলেই আমার মেরুদন্ড ধ্বসে পরবে এমন কোনো দাসখত আমি লিখিনি। আর আমার ধ্যান ধারণা বিবেক বিচার আপনাদের কথায় ওঠা নামা করে না।অসভ্য হওয়ার জন্য যে শিরদাঁড়াহীনতা লাগে সেটাও আমার নেই। তাই বেশ করেছি”। যদিও এই কড়া ভাষায় প্রতিক্রিয়া আসার পরেও অনেকেই কিন্তু সেই পোস্টে আবারও অভিনেত্রীর সমালোচনায় মগ্ন হয়ে উঠেছেন।

Back to top button