নিউজভিডিও

‘সকাল বেলা উঠেই পান্তা ভাত খেয়ে দিন কাটাতে হচ্ছে, আপনারাই বলুন আমি পান্তাভাত খাওয়ার যোগ্য?’- ভাইরাল রানু মন্ডলের নতুন ভিডিও

নিজস্ব প্রতিবেদন :- সময়টা দেড় বছর আগের যখন বাজারে একটি নাম একচেটিয়া অধিকার করে আছে সেটি হল রানু মন্ডল। বিভিন্ন সোশ্যাল মিডিয়া প্ল্যাটফর্ম ফেসবুক-ইউটিউব ইনস্টাগ্রাম থেকে শুরু করে সব জায়গাতে রানু মন্ডল নাম ছড়িয়ে পড়েছিল। তার কারণ তিনি রাতারাতি স্টেশনের ভিখারি থেকে হয়ে গিয়েছিলেন তারকা। রানাঘাট স্টেশন চত্বরে লতা মঙ্গেশকরের এক পেয়ার কা নাগমা হে গান গেয়ে রীতিমতো নজর কেড়েছিলেন নেটিজেনদের। এবং তাতেই করেছিলেন কিস্তিমাত। রাতারাতি পাড়ি দিয়েছিল মুম্বাই ।

অতীন্দ্র বলে কোন এক পথযাত্রী তার গাওয়া গানটি ভিডিও রেকর্ড করেন এবং সোশ্যাল মিডিয়ার মধ্যে শেয়ার করেন ।মুহূর্তের মধ্যেই ভিডিও ভাইরাল হয় এবং রানু মন্ডল কে জানতে থাকে দেশের আনাচে-কানাচে থাকা প্রতিটি মানুষ।সেই মতো রানু মন্ডল হিমেশের সাথে একটি গান করেন। কিন্তু তারপর তারপর কেটে গেছে অনেকটা সময়। কোথাও যেন হারিয়ে গেছে রানু মন্ডল ।কিন্তু কেন হারিয়ে গেছে তার কারণ আমাদের সকলেরই জানা । তার এই হারিয়ে যাওয়ার পিছনে আছে শুধুমাত্র তার অহংকার রয়েছে ।

আগের বছর ডিসেম্বর মাসে একটি শপিং মলের তার কোনো এক অনুগামী তার সাথে সেলফি তুলতে যাওয়ার ইচ্ছা প্রকাশ করলে তিনি তাকে “ডোন্ট টাচ “বলে অপ-মানিত করেন এর পাশাপাশি ভক্তদের প্রতি দুর্ব্যবহার তার অহংকার পত-নের মূল কারণ এমনটা মনে করে অনেকে। কিন্তু এই লকডাউনে কেমন আছে রানু মন্ডল ?

এই লকডাউনে রানু মন্ডল এর পরিস্থিতি জানতে এক সংবাদমাধ্যম তার বাড়িতে যায়। সেখানে তিনি বলেন যে কোন গানের শো বক কোন অনুষ্ঠান না থাকার দরুন এই লকডাউন তার বি-ব-স্ত্র যন্ত্র-ণার মধ্যে দিয়ে কাটছে। মাঝে মধ্যে দিয়ে খালি পেটে দিন কাটাতে হচ্ছে । তবে তাতে তিনি দমে যাননি। এরই মাঝে একটি ইউটিউব প্ল্যাটফর্ম এর মাধ্যমে তিনি ত্রাণের আর্জি জানান। যা তিনি গরীব বাচ্চাদের নিজের হাতে দান করবে বলে জানা গিয়েছিল । এর পাশাপাশি তিনি জানান এই লকডাউনে কখনো কখনো একবেলা খেয়ে দিন কাটিয়েছেন। তবে এসবের পিছনে তিনি ভগবানকে একমাত্র দায়ী করেন এবং তাই নিজের কষ্ট যন্ত্রণা দূর করতে তিনি মাঝে মাঝে ভগবানকে গালাগালিও দেন এতে নাকি তার কষ্ট দূর হয় ।এমনটাই জানিয়েছেন রানু মন্ডল ।

Leave a Reply

Your email address will not be published.

Back to top button