ফ্রিজে রাখা শক্ত পনির কয়েক মিনিটেই হবে নরম ও টেস্টি, শুধু জেনে রাখুন এই দুর্দান্ত ৭টি টিপস

নিজস্ব প্রতিবেদন: আজকের এই বিশেষ প্রতিবেদনে আমরা আপনাদের সঙ্গে শেয়ার করে নিতে চলেছি ফ্রিজে থাকা শক্ত পনির খুব সহজেই নরম করে তোলার পদ্ধতি। যাতে এটা রান্নার পরে একেবারে সুস্বাদু হয়ে ওঠে। চলুন আর দেরি না করে আমাদের আজকের এই বিশেষ প্রতিবেদনটির মূল পর্বে যাওয়া যাক।

ফ্রিজে থাকা পনির নরম করার সাতটি উপায়:

১) রুম টেম্পারেচারে রাখুন:

রুম টেম্পারেচারে রেখে দিলে কিন্তু খুব সহজেই ফ্রিজে থাকা পনির নরম হয়ে যেতে পারে। যদি পনির বড় আকারে থাকে সেক্ষেত্রে এটাকে কিউব করে মোটামুটি এক ইঞ্চি সাইজে কেটে নিতে হবে।ফ্রোজেন পনিরের কিউবগুলো রান্নার আগে সর্বনিম্ন ৩০ মিনিট বা সর্বোচ্চ ৩ ঘন্টা রুম টেম্পারেচারে রাখবেন। এতে ঘরোয়া তাপমাত্রার সাথে পনির এডজাস্ট করবে এবং আপনা আপনিই নরম হয়ে যাবে। প্রসঙ্গত কনসিসটেন্সি পেতে কিন্তু মোটামুটি দুই ঘন্টা সময় লেগেই যাবে।

২) গরম জলে ডুবিয়ে রেখে দিন:

ফ্রোজেন পনির নরম করতে কিন্তু আপনারা সেটাকে চাইলে গরম জলেও ডুবিয়ে রেখে দিতে পারেন। আসলে শীতকালে যদি আপনারা রুম টেম্পারেচারে রেখে পনির নরম করার চেষ্টা করেন তাহলে কিন্তু কোন লাভ হবে না। তাই বিকল্প পদ্ধতি হিসেবে এই সময় গরম জলে আপনারা ডুবিয়ে রাখতে পারেন। মাঝারি সাইজের একটা বাটিতে হালকা গরম (১১০ ডিগ্রী তাপমাত্রার) জল ঢেলে নিন। এতে পনিরের কিউবগুলো ঢেলে দিন। জলের পরিমাণ এমন হতে হবে যাতে পনির ডুবে যায় ঠিকই কিন্তু ভেসে না থাকে। এভাবে ৫ মিনিট পনির ভিজিয়ে রেখে তুলে ফেলুন এবং জল ঝরিয়ে রান্নার কাজে লাগান।

৩) সেদ্ধ করে নিন:

ফ্রোজেন পনির নরম করার আরো একটি উপায় হল এটাকে সেদ্ধ করে নেওয়া। তবে তার জন্য আপনাদের নির্দিষ্ট কয়েকটি কাজ করতে হবে। ছোট একটা সসপ্যানে ২ কাপ জল ঢেলে গ্যাসে বসিয়ে দিন। জল যখন ফুটে উঠবে তখন পনিরের কিউবগুলো দিয়ে ৩০ সেকেন্ড থেকে ১ মিনিট সেদ্ধ করুন। এরপর জল ঝরিয়ে সাথে সাথে ঠান্ডা জলে ১০ মিনিট ডুবিয়ে রাখুন। গরম জলের পরে ঠান্ডা জলের সংস্পর্শে ফ্রোজেন পনির নরম হয়। এর ফলে সঠিক কনসিসটেন্সি পেতেও কিন্তু কোন ধরনের সমস্যাই হবে না। তবে একটি কথা মাথায় রাখবেন যদি সেদ্ধ করার পরে পনির আবারো ঠান্ডা জলে না দেন সে ক্ষেত্রে কিন্তু এটা নরম হবেই না উল্টে রান্না করার পরে আরো শক্ত হয়ে যাবে।

৪) হালকা ভেজে নিতে পারেন:

পনির কিন্তু ভেজেও নরম করে নেয়া যেতে পারে। এর জন্য গ্যাসে একটি ফ্রাইং প্যান বসিয়ে ১-২ টেবিল চামচ ঘি বা তেল দিয়ে মাঝারি আঁচে ১ মিনিট গরম করুন। পনিরের কিউবগুলো এতে দিয়ে প্রতি ১০-১৫ সেকেন্ডে উল্টে দিন। দেখবেন পরবর্তী কয়েক মিনিটের মধ্যেই পনির গুলি হালকা সোনালী খয়েরি রংয়ের হয়ে গিয়েছে। তখন ধীরে ধীরে এগুলি নামিয়ে ফেলবেন। খুব বেশি কিন্তু ভাজার প্রয়োজন নেই। আর হ্যাঁ পনির ভাজার সময় কিন্তু কিছুক্ষণ অন্তর অন্তর প্যানটা নাড়িয়ে নিতে ভুলবেন না। নয়তো পনিরের কিউবগুলি প্যানের মধ্যে আটকে যেতে পারে।

৫) ভাপিয়ে নিতে পারেন:

অনেক সময় দেখা যায় জলে ডুবিয়ে রাখলে বা সেদ্ধ করলে পনিরের টেক্সচারে কিছু পরিবর্তন চলে আসে বা স্বাদেও পরিবর্তন হয়ে যায়। তবে যদি আপনারা পনির নরম করার জন্য সেটাকে ভাপিয়ে নেন তবে কিন্তু আর এই সমস্যা হবে না।একটা ডিপ ফ্রাইপ্যান বা সসপ্যানে আধা থেকে ১ কাপ জল ঢালুন এবং ফুটিয়ে নিন। জল যখন টগবগ করতে থাকবে তখন গ্যাস বন্ধ করে দিন। এবার পাত্রের মুখের সমান জালি বা ছাঁকনী নিয়ে পাত্রের উপর বসিয়ে দিন। পনিরের কিউবগুলো এমনভাবে ছাঁকনীতে ছড়িয়ে দিন যাতে একটা আরেকটার সাথে লেগে না থাকে। অবশ্যই ঢাকনা দিয়ে ঢেকে রাখবেন যাতে বাষ্প বাইরে যেতে না পারে। এভাবে 10 থেকে 15 মিনিট পর্যন্ত ঢেকে রেখে দিন। দেখবেন ধীরে ধীরে পনির নরম আর স্পঞ্জি হয়ে গিয়েছে।

৬) ফ্রিজে ঢেকে রাখুন:

অনেকেই কিন্তু ফ্রিজের মধ্যে পনির খোলা অবস্থায় রেখে দেন। এটা পনির শক্ত হয়ে যাওয়ার অন্যতম কারণ।রেফ্রিজারেটরের ঠান্ডা আবহাওয়া পনিরের ময়েশ্চার শুকিয়ে ফেলে এবং রাবারের মত শক্ত করে ফেলে। তাই পনির যখন রেফ্রিজারেটরে রাখবেন তখন কোন এয়ার টাইট বক্সে বা কন্টেইনারে করে রাখবেন। বক্সের মুখ যেন ভালো করে আটকানো থাকে। তাহলে কিন্তু এবার থেকে আর আপনাদেরকে খুব বেশি সমস্যার মুখোমুখি হতে হবে না।

৭) রান্নার শেষের দিকে পনির ব্যবহার করুন:

আপনি যতই পদ্ধতি ট্রাই করুন না কেন যদি রান্নার শুরুতেই পনির দিয়ে দেন তাহলে কিন্তু এটা অবশ্যই ইটের মতন শক্ত হয়ে যাবে। অনেকেই এই ভুলটা করে থাকেন। এবার থেকে কিন্তু সেটা একেবারেই করবেন না।।তাপের সংস্পর্শে বেশীক্ষণ থাকলে এমনটা হয়। আবার কেউ কেউ পনির আগে ভেজে তারপর রান্নায় দেন। ডিপ ফ্রাই করা পনিরের টেক্সচারও রাবারের মতো হয়ে যায়। তাই সফট পনির পেতে চাইলে আগে ফ্রোজেন অবস্থা থেকে নরম তো করবেনই, সেই সাথে রান্নার শেষের দিকে কড়াইতে পনির দিয়ে দেবেন। ব্যস উপরিয়ক্ত এই কয়েকটি বিষয় খেয়াল রাখলে কিন্তু আপনাদের আর কোন সমস্যার মুখোমুখি হতে হবে না।। সুতরাং এবার থেকে পনির রান্নার সময় এই কয়েকটি ব্যাপারে আপনারা লক্ষ্য রাখবেন।।

\

Back to top button