শীত পরার আগে অপরাজিতা গাছে দিন এই দুটি সার, এক সপ্তাহেই ফুলে ভরে উঠবে গাছ

নিজস্ব প্রতিবেদন: গাছপালার প্রতি কিন্তু কিছু মানুষের এক প্রকার আলাদাই ভালোবাসা রয়েছে বলা যায়। আজকাল অনেকেই অবসর সময়ে বাড়িতে নানান ধরনের গাছ লাগিয়ে থাকেন এবং সেগুলির পরিচর্যাতে সময় কাটান। আজকের এই বিশেষ প্রতিবেদনে আমরা আপনাদের সঙ্গে আলোচনা করে নিতে চলেছি অপরাজিতা গাছের পরিচর্যা নিয়ে। কি সার প্রয়োগ করলে মাত্র কয়েক সপ্তাহের মধ্যেই এই গাছ সম্পূর্ণ ফুলে পরিপূর্ণ হয়ে উঠবে এবং দারুন বৃদ্ধি পাবে সেটাই আমাদের আজকের আলোচ্য বিষয়। ]

প্রতিবেদনের মূল পর্বে যাওয়ার আগে আমরা অপরাজিতা গাছ সম্পর্কে কিছু জেনে নেব। অপরাজিতা ফুলটি Popilionaceae পরিবারের অন্তর্ভুক্ত। এর ইংরেজি নাম ‘বাটারফ্লাই পি’। গাঢ় নীল বলে একে ‘নীলকণ্ঠ’ নামেও ডাকা হয়।অপরাজিতা সাধারণত নীল ছাড়াও সাদা এবং হালকা বেগুনি রঙের ফুল হয়ে থাকে। ফুলের ভেতরের দিকটা সাদা বা ঈষৎ হলুদ রঙের হয়ে থাকে। লতানো এবং সবুজ পাতা বিশিষ্ট গাছে এ ফুল হয়ে থাকে। তবে ফুলে কোনো গন্ধ নেই।

অপরাজিতা গাছের পরিচর্যা:

অপরাজিতা গাছ যখন আপনারা বাড়িতে লাগাবেন তা খোলা মাটিতে হোক অথবা টবে আপনাদের কিন্তু মাচা বানিয়ে নিতে হবে। প্রসঙ্গত অপরাজিতা গাছ কিন্তু শুটি তৈরি করতে থাকে আপনাদের কিন্তু এটা সরিয়ে দিতে হবে। নয়তো গাছের বৃদ্ধি ব্যাহত হয়ে যাবে। এমন দুটি সার রয়েছে যা যদি আপনি এই গাছে প্রয়োগ করেন তাহলে কিন্তু গাছ সারা বছর ফুলে ভরে থাকবে। চলুন এবার এই দুটি সার সম্পর্কে বিস্তারিত জেনে নেওয়া যাক।

১) অপরাজিতা গাছে প্রয়োগের জন্য আমরা প্রথমেই যে সারটির কথা বলতে চলেছি সেটি হল কলার খোসা। বাড়িতে পাকা কলা খাওয়ার পর যে চোকলা পড়ে থাকে সেটাকে বেশ কয়েকদিন শুকিয়ে নেওয়ার পর আপনাদের এখানে নিতে হবে। অন্ততপক্ষে পাঁচ থেকে ছয় দিন পর্যন্ত আপনারা এটাকে শুকিয়ে নেবেন। মাসে অন্ততপক্ষে এক থেকে দুই বার আপনাদের এভাবে এই শুকিয়ে নেওয়া কলার খোসা গাছের গোড়ায় দিয়ে দিতে হবে। দেওয়ার পরে গাছের গোড়ার মাটি কিন্তু একটু খুড়ে নেবেন এবং তারপর জল ব্যবহার করবেন। এটার মধ্যে কিন্তু অনেক উপাদান থাকে তাই আপনাদেরকে আর অতিরিক্ত কোন সার দিতে হবে না।

২) এবার দ্বিতীয় যে সার নিয়ে আপনাদের সঙ্গে আলোচনা করতে চলেছি সেটাও কিন্তু সমানভাবে কার্যকরী। এটা হল ভার্মিং কম্পোস্ট বা গোবর সার এবং NPK suphala 10:26:26 এর মিশ্রণ। চারমুঠো ভার্মিং কম্পোস্টের সঙ্গে আপনাদেরকে NPK suphala একমুঠো পরিমাণে মিশিয়ে নিতে হবে। এরপর চা চামচের দুই চামচ করে এক একটি গাছে আপনাদের দিয়ে দিতে হবে। গাছের গোড়াতে এই সার দেওয়ার পরেও আপনাদেরকে পরিমাণ মতন জল দিয়ে দিতে হবে।

সার দেওয়ার পর পরিমাণ মতো জল দিলে গাছের গোড়ায় এটি ভালোভাবে প্রবেশ করে যাবে। ব্যস এই দুটি সার যদি আপনারা অপরাজিতা গাছের গোড়ায় ভালোভাবে সময় করে দিয়ে দিতে পারেন তাহলে কিন্তু আর এর বৃদ্ধি এবং ফুলের পরিমাণ নিয়ে আপনাকে কখনো চিন্তা করতে হবে না। সপ্তাহখানেক এর মধ্যেই আপনারা ফলাফল দেখতে পেয়ে যাবেন।

Back to top button