চার সপ্তাহের মধ্যে ফ্রান্স থেকে ভারতে পৌঁছতে পারে আরও চার রাফাল যু’দ্ধবিমান, জানালো বায়ুসেনা!

চার সপ্তাহের মধ্যে ফ্রান্স থেকে ভারতে পৌঁছতে পারে আরও চার রাফাল যু’দ্ধবিমান, জানালো বায়ুসেনা!

নিজস্ব প্রতিবেদন :-১৯৪৭ সালের ১৫ ই আগস্ট ভারত বর্ষ এ প্রথম আসে স্বাধীনতা । তারপর সত্তর দশক পেরিয়ে গেছি আমরা ঘটেছে বহু উন্নতি। স্বাধীনতার প্রাক্কালে ভারত বর্ষ আর এখনকার ভারতবর্ষের মধ্যে অনেক পার্থক্য ।অবশ্যই এটা হওয়া খুবই স্বাভাবিক। কিন্তু অন্যান্য দেশের তুলনায় ভারত বর্ষ কোথাও যেন দ্রুত হারে উন্নতির শিখরে পৌঁছেছে। উন্নতির কথা বলতে গেলে প্রথম তালিকায় যে বিষয়টি মাথায় রাখা দরকার সেটি হচ্ছে প্রতিরক্ষা। ভারতবর্ষ প্রতিরক্ষা দিক থেকে অনেক এগিয়ে অন্যান্য দেশের তুলনায়। বলা যেতেই পারে প্রথম তালিকার অন্তর্ভুক্ত। কিন্তু তাতে কোথাও যেন খেদ মেটেনা ভারতের ।তাই এই প্রতিরক্ষা ব্যবস্থাকে আরও উন্নত করতে দ্বিতীয় দফায় ভারতে আসতে চলেছে আরো কিছু অত্যাধুনিক যুদ্ধবিমান এবং ক্ষে-প-ণা-স্ত্র ।

চার বছর আগে ভারত ফ্রান্সের সঙ্গে ৫৯ হাজার কোটি টাকায় ৩৬ টি- রাফা-ল যু-দ্ধবিমান ক্রয়ের চুক্তি করেছিল। এরপর ঠিক হয় যে দফায় দফায় ফ্রান্স থেকে যু-দ্ধবি-মা-ন গুলি ভারতে এসে পৌঁছবে । কিন্তু তার মাঝে একটি বি-ত-র্ক সৃষ্টি হয়েছিল রাফাল যু-দ্ধবিমান নিয়ে। যদিও সে বি-ত-র্ক এখনো পর্যন্ত ঠিক হয়নি। তবু কাজ থেমে নেই। তাই দ্বিতীয় দফায় আসতে চলেছে রা-ফা-ল যু-দ্ধবিমান ।মনে করা হচ্ছে বায়ুসেনা আরো একধাপ এগিয়ে গেল প্রতিরক্ষা দিক দিয়ে ।

পাঁচ রা-ফা-ল যু-দ্ধবিমানের প্রথম সম্ভার গত ২৯ জুলাই ভারতে পৌঁছেছিল। গত ১০ সেপ্টেম্বর ওই বিমানগু-লি ভারতের বায়ুসেনার অন্তর্ভূক্ত হয়েছে। বায়ুসেনা প্রধান এস ভদৌরিয়া গত ৫ অক্টোবর বলেছিলেন যে, ২০২৩ সালের মধ্যে ৩৬ টি বিমানই বায়ুসেনার অন্তর্ভূক্ত করা হবে। আগামী চার সপ্তাহের মধ্যেই ভারতের হাতে পৌঁছাবে দ্বিতীয় দফার রা-ফা-ল যু-দ্ধবিমান । প্রস্তুতির অঙ্গ হিসেবে বায়ুসেনার সাজসর্জাম সংক্রান্ত বিষয়টি দেখতে ও সেখানকার বায়ুসেনা কেন্দ্রে বাছাই করা পাইলটদের প্রশিক্ষণের সমীক্ষার জন্য আধিকারিকদের একটি দলকে ফ্রান্সে পাঠানো হয়েছে ।

এই রাফা-লের রয়েছে অত্যাধুনিক ব্যবস্থা। এটি আকাশে উড়ন্ত অবস্থায় নির্ভুলভাবে শত্রুর ঘাঁটি ধ্বং-স করতে সক্ষম ।এছাড়া এর ক্ষেপ-ণাস্ত্র ব্যবস্থা অন্যান্য সকল যু-দ্ধবিমান থেকে উন্নত । উল্লেখযোগ্য বিষয় হল, আকাশ থেকে আকাশে নিক্ষেপযোগ্য মেটেওর মিসা-ইল। এই মিসা-ইল এশিয়ার কোনও দেশ তো দূরের কথা, চিনেরও নেই। জোড়া ইঞ্জিন এই রাফা-লের রয়েছে এয়ার সুপ্রিমেসি । অর্থাৎ শত্রুপক্ষ কোন হেলিকপ্টার বা ড্রোন আকাশে কয়েকশ কিলোমিটার পর্যন্ত আসতে পারবে না এই রাফা-লের সামনে । সম্প্রতি এই ধরনের সিদ্ধান্তকে সাধারণ মানুষ আরো সাধুবাদ জানিয়েছে। তার সাথে সাথে মনে করা হচ্ছে যে পৃথিবীর শ্রেষ্ঠ দেশগুলোর মধ্যে ভারত বর্ষ হতে চলেছে অন্যতম একটি দেশ ।


Leave a Reply

Your email address will not be published.