“সবাই এতো প্রশংসা করছে তাই আমাকে সেজে আসতে হলো!”, ফের নিজের বড়াই করতে গিয়ে সুদিপার ওপর চটলো নেটিজেনরা

নিজস্ব প্রতিবেদন: সম্প্রতি আবারো সোশ্যাল মিডিয়াতে একটি পোস্টকে কেন্দ্র করে নেটিজেনদের কটাক্ষের সম্মুখীন হয়েছেন সুদীপা। উল্লেখ্য বিগত দীর্ঘ সময় ধরেই রান্নাঘরের অনুষ্ঠান সঞ্চালনা করেন সুদীপা চ্যাটার্জী। যারা নিয়মিত সোশ্যাল মিডিয়ার ব্যবহারকারী তারা কিন্তু কমবেশি সকলেই তাকে চেনেন। যুগের সঙ্গে তাল মিলিয়ে সোশ্যাল মিডিয়াতেও কিন্তু অনেকটাই সক্রিয় সুদীপা চ্যাটার্জী।

সঞ্চালনার কাজ ছাড়াও নিজের সাজসজ্জার ব্র্যান্ডও রয়েছে তার। অভিনেত্রীর একটি নিজস্ব বুটিক রয়েছে, সেখানে নানা ধরণের শাড়ি, গয়না থেকে শুরু করে শিল্পকর্ম পাওয়া যায়। বহুদিন হল এই সমস্ত ব্যবসা শুরু করেছেন তিনি। সম্প্রতি নিজের ইনস্টাগ্রাম এর একটি পোস্টে গয়নার বড়াই করতে গিয়ে আবারো তাকে সমালোচনার মুখোমুখি হতে হয়। মহানবমীর পুজো উপলক্ষে একটি লুক শেয়ার করেছিলেন সুদীপা চ্যাটার্জি। আর তাতেই নেটিজেনরা ক্রমাগত আক্রমণ করে চলেছেন তাকে।

প্রসঙ্গত নিজের instagram থেকে একটি ছবি শেয়ার করে সুদীপা লিখেছিলেন, “আমার নবমী লুকটার সবাই এত প্রশংসা করেছে যে সবার জন‍্য এত লুকটা আমাকে বানাতেই হল যত তাড়াতাড়ি সম্ভব। এটা আপনাদের দিওয়ালি লুকও হতে পারে”। এখানেই শেষ নয় সাজ সম্পর্কে তিনি আরও লেখেন, ‘একটি তাসার বেনারসি শাড়ি, এবং দুটি নেকলেস সেট (আমারটা স্বর্ণ দিয়ে, কিন্তু এটি অত্যন্ত বেশি দাম)- ব্রোঞ্জ + তামা + গোল্ড পলিশ দিয়ে। ’আসলে মহানবমী উপলক্ষে যে শাড়ি আর গয়নাগুলির সুদীপা পরিধান করেছিলেন সেগুলোকে তিনি অত্যন্ত দামি বোঝাতে চেয়েছিলেন।

সেগুলি অনেকের পছন্দ হওয়ায় তিনি সেগুলির একটি ডুপ্লিকেট তৈরি করে বিক্রির উদ্দেশ্যে ছবি পোস্ট করেন। তবে যাই হয়ে যাক না কেন, অভিনেত্রীর এই ‘অতন্ত্য দামি’ লেখার ব্যাপারটাই নেটিজেনদের অনেকে ভালো চোখে দেখেননি। প্রসঙ্গত এর আগেও একবার, নিজের গয়নার বড়াই করে নেট মাধ্যমের একাংশের কটাক্ষের সম্মুখীন হয়েছিলেন সুদীপা। তার সেই পোস্টের সঞ্চালিকা লিখেছিলেন, ‘তিনি সোনার গয়না ছাড়া পরেনই না’।

অভিনেত্রীর এই মানসিকতাকে অনেকেই অহংকারী বলে আখ্যা দিয়েছিলেন। এবারে আবারো এই শাড়ি আর গয়নার প্রচার করতে গিয়ে মানুষের বিরোধিতার সম্মুখীন হলেন তিনি। এই পোস্টে কিন্তু অনেকেই তার উদ্দেশ্যে নানান ধরনের বিরুদ্ধ কমেন্ট করেছেন। যেমন এক জনৈক নেটিজেন লিখেছেন,“সুদীপা দিদির অনেক সোনা আছে এটাই কি উনি জানাতে চান?” তো কেউ আবার বলেছেন, ‘সুদীপা নিজে যেটা পরেছেন সেটাও সোনার নয়।

উনি পুজোতে অনেক ইমিটেশনের গয়না পরেছিলেন। সেগুলো স্পষ্ট করে বলতে লজ্জা লাগে?’এই সমস্ত মন্তব্যের কোন রকমের প্রতিক্রিয়া দেননি সুদীপা চ্যাটার্জি। ডেলিভারি বয়দের কেন্দ্র করে বিতর্কিত মন্তব্য এখন ধামাচাপা পড়ে গেলেও মহানবমী স্পেশাল এই গয়নাকে কেন্দ্র করে ট্রোলিং এখন কত দিন চলবে তা হয়তো ধারণার বাইরে।

Back to top button