স্কিনের কালচে ভাব দূর হয়ে বাড়বে গ্লো! শুধুমাত্র বাড়িতেই খুব সহজ এই পদ্ধতিতে বানিয়ে নিন ম্যাজিকাল সাবান

নিজস্ব প্রতিবেদন: কম খরচে ত্বকের জেল্লা বৃদ্ধি করতে বা ফর্সা হতে কে না চায়! যদিও আমাদের সবসময় ঈশ্বর প্রদত্ত গায়ের রং এর উপরেই বেশি নজর রাখা উচিত। মানুষ নিজের মতন করেই সুন্দর হয়ে থাকে। সত্যি কথা বলতে বিভিন্ন নামীদামি ক্রিম ব্যবহার করেও খুব একটা ফর্সা কিন্তু হওয়া যায় না। তবে আপনারা চাইলে বিশেষ কিছু ক্রিম বা সাবান ব্যবহার করে অবশ্যই আপনাদের ত্বকের উজ্জ্বলতা বৃদ্ধি করতে পারেন।

এতে সাজগোজের সময় কিন্তু দেখতে খুবই ভালো লাগবে। আজকের এই বিশেষ প্রতিবেদনে আমরা আপনাদের জন্য নিয়ে এসেছি একটি দারুণ সাবান তৈরির পদ্ধতি। এই সাবানটি ব্যবহার করলে কিন্তু আপনাদের ত্বকের উজ্জ্বলতা কয়েক গুণ পর্যন্ত বৃদ্ধি পাবে এবং দেখতেও খুব ভালো লাগবে। পাশাপাশি আপনাদের স্কিনে কোন সমস্যা থাকলেও সেটা দূর হয়ে যেতে পারে। চলুন তাহলে আর দেরি না করে এই পদ্ধতি সম্পর্কে বিস্তারিত জেনে নেওয়া যাক।

বিশেষ সাবান তৈরির পদ্ধতি:

১) এই সাবানটি তৈরি করার জন্য একটা পাত্রের মধ্যে আপনাদের দিয়ে দিতে হবে এক চা চামচ চালের গুঁড়ো এবং সমপরিমাণ বেসন। সাধারণত বাড়িতে যে চালের ভাত রান্না হয়ে থাকে সেই চাল টাই এখানে ব্লেন্ড করে গুঁড়ো করে নেবেন। এবার এর মধ্যে দিয়ে দিন কিছুটা পরিমাণে এলোভেরা জেল, এক চা চামচ মধু এবং এক চা চামচ ক্যাস্টর অয়েল।

এখানে কিন্তু আপনারা গাছের অ্যালোভেরা জেল ব্যবহার করতে পারবেন না, বাজার থেকে কিনে আনতে হবে। তারপর আপনাদের এর মধ্যে আরও একটি উপাদান যোগ করে দিতে হবে।সেটি হলো ভিটামিন ই ক্যাপসুল। তবে যদি আপনাদের খুব বেশি ড্রাই স্কিন হয়ে থাকে তবেই কিন্তু এটা ব্যবহার করবেন। যদি মিশ্রণটি খুব ঘন হয়ে থাকে সেক্ষেত্রে কিন্তু সামান্য গোলাপজল এতে দিয়ে ভালো করে সমস্ত উপকরণ গুলিকে মিশিয়ে নেবেন।

২) দ্বিতীয় ধাপে আপনাদের অন্য একটি পাত্রের মধ্যে নিয়ে নিতে হবে জাফরান। জাফরান স্কিনের উজ্জ্বলতা বৃদ্ধি করতে ব্যাপক পরিমাণে সাহায্য করে থাকে। প্রসঙ্গত যদি আপনি এই সাবানগুলো বিক্রি করতে চান তাহলে কিন্তু কখনোই ভুল করে নকল জাফরান ব্যবহার করবেন না।

এক চিমটে জাফরান এই কাজে লাগবে সুতরাং অবশ্যই কিন্তু আসল ব্যবহার করবেন। তারপর আপনাদের একটি পাত্রের মধ্যে 150 থেকে 200 গ্রাম পরিমাণ সোপ বেস নিয়ে নিতে হবে। তারপর এটাকে ছোট টুকরো করে নিয়ে ডবল বয়লারে মেল্ট করতে হবে। এটি সম্পূর্ণরূপে গলে গেলে এর মধ্যে সামান্য পরিমাণে রং মিশিয়ে দিন যাতে দেখতে ভালো লাগে।।

৩) তৃতীয় ধাপে প্রথমে আপনারা যে পেস্ট তৈরি করেছিলেন সেটাকে এবার এই সোপবেসের মধ্যে দিয়ে দিতে হবে। তারপর গোলাপজল মেশানো জাফরান এতে দিয়ে দিতে হবে। প্রসঙ্গত আপনারা জাফরান আগে থেকে একটু গোলাপজলে ভিজিয়ে রাখবেন। সমস্ত উপকরণ ভালো করে মিশিয়ে এটা কে আপনাদের গ্যাস থেকে নামিয়ে আনতে হবে।

তারপর সিলিকন বা কাঁচের বাটিতে সামান্য পরিমাণে জাফরান দিয়ে এই মিশ্রণ গুলিকে রেখে দিন। চাইলে আপনারা কিন্তু আইসক্রিমের কাপও এই কাজে ব্যবহার করতে পারেন।। মোটামুটি এক ঘণ্টার মধ্যেই মিশ্রণ গুলি জমে গিয়ে সাধারণ তাপমাত্রায় সাবান তৈরি হয়ে যাবে।

তবে আপনারা চাইলে এটাকে ফ্রিজে রেখেও জমিয়ে নিতে পারেন। কিন্তু যদি এটাকে ফ্রিজে রেখে জমিয়ে নেন সে ক্ষেত্রে কিন্তু দেখবেন এটার মধ্যে থেকে জল বেরোচ্ছে। তাই আপনি যদি এই সাবান ফ্রিজে রেখে তৈরি করে থাকেন সেক্ষেত্রে আপনাকে কিন্তু সেটা ফ্রিজে রেখেই ব্যবহার করতে হবে। শুধুমাত্র ব্যক্তিগত ব্যবহার নয় আপনারা চাইলে আজকাল সোশ্যাল মিডিয়ার মাধ্যমে যেভাবে অন্যান্য জিনিস বিক্রি করা হয়ে থাকে ঠিক তেমনভাবেই এটাকে বাজারজাত করতে পারেন।। কয়েকদিন ব্যবহার করে নিজেরাই ফলাফল হাতেনাতে বুঝতে পারবেন।

Back to top button