সৌরভপ্রেমীদের জন্য পুজোতে বড়ো চমক! সৌরভ গাঙ্গুলির পঞ্চাশ বছর পূর্তিতে আসছে মহারাজার পঞ্চাশে পঞ্চাশ!

নিজস্ব প্রতিবেদন:- গত ৮ জুলাই ৫০ বছর পূর্ণ করেছেন প্রাক্তন ভারতীয় ক্রিকেট অধিনায়ক তথা আমাদের মহারাজা সৌরভ গাঙ্গুলী।কাকতালীয় ভাবে তাঁর পাড়ার দুর্গাপুজোও এ বছর ৫০তম বর্ষে পদার্পণ করছে। সেই উপলক্ষ্যে বড়িশা প্লেয়ার্স কর্নার তাঁদের পুজোয় সামনে রাখতে চায় পাড়ার ছেলে মহারাজকেই। হ্যাঁ অত্যন্ত আশ্চর্যজনকভাবে বড়িশা প্লেয়ার্স কর্নার তাঁদের পুজোয় সামনে রাখতে চায় পাড়ার ছেলে মহারাজকেই। তাই তাঁদের শারদোৎসবের সুবর্ণ জয়ন্তী বর্ষে থিম সৌরভ।

প্রসঙ্গত উল্লেখ্য শিল্পী অভিজিৎ ঘটকের ভাবনায় সেজে উঠছে বড়িশা প্লেয়ার্স কর্নারের ২০২২ সালের শারদোৎসব। থিমের পোশাকি নাম দেওয়া হয়েছে ‘একটি পুজোর গপ্পো’। এই পুজোর সঙ্গে গোড়া থেকেই সৌরভ ও তাঁর পরিবারের আত্মিক যোগ রয়েছে, সে কথা বলছেন প্রকাশ্যেই। সেই কারণেই কি ‘মহারাজার ৫০/৫০’ স্লোগান দিয়ে সুবর্ণ জয়ন্তী বর্ষের পুজোয় উদ্যোগী হয়েছেন তাঁরা?

প্রসঙ্গত এই প্রশ্নের উত্তর দিতে গিয়ে পুজোর অন্যতম কর্মকর্তা কালীপদ দাস সংবাদ মাধ্যমকে জানিয়েছেন, ”সৌরভ আমাদের পাড়ার ছেলে। তাঁর সঙ্গে পাড়ার পুজোর যোগাযোগ থাকবে সেটাই স্বাভাবিক। আর আমাদের পাড়ার পুজো শুরু করতে ওঁর বাবা ও কাকাদের বিরাট ভূমিকা ছিল। তবে এ বারের পুজোয় ঠিক কী কী চমক থাকছে, তা আমি এখনই বলব না।”

জানিয়ে রাখি সৌরভ গাঙ্গুলীর বাড়ির লাগোয়া একটি মাঠেই এই পুজোটি হয়ে থাকে। যে শিল্পীর হাতে এই পুজো সাজানোর দায়িত্ব সেই শিল্পী অভিজিৎ বলছেন, ‘‘প্লেয়ার্স কর্নার এই প্রথম বিষয় ভাবনার পুজো করতে চলেছে। এই পুজোয় অবশ্যই বাড়তি পাওনা সৌরভ ও পুজোর একই সঙ্গে সুবর্ণ জয়ন্তী বর্ষ। পুজো নিয়ে কোনও কথা না বললেও, এটুকু বলতে পারি বড়িশা প্লেয়ার্স কর্নারের পুজো একেবারে অন্য রকম হবে।’’

এমনকি এই পুজো কমিটির পৃষ্ঠপোষক কিন্তু দাদা স্বয়ং। কোনও বড় রকমের ব্যস্ততা না থাকলে সৌরভকে প্রতি বছর পাড়ার পুজোয় অংশ নিতে দেখা যায়। তবে সম্প্রতি সৌরভ বেহালার ২/ বীরেন রায় রোড (পূর্ব)-র বাড়িটি ছেড়ে মধ্য কলকাতার এক নতুন বাংলোয় বসবাসের সিদ্ধান্ত নিয়েছেন। তাই কিছুটা হলেও মন খারাপ বড়িশাবাসীর। প্রসঙ্গত পুজোর থিমে সৌরভ গঙ্গোপাধ্যায়ের নানান দুষ্প্রাপ্য ছবি সাজানো হতে চলেছে যাদের বেশ বড় আকর্ষণ হবে ভক্তদের কাছে।

এমনিতেই মোটামুটি পুজোর প্রথম দিনগুলি থেকেই এই মন্ডপে কিন্তু দর্শনার্থীদের ভিড় উপছে পড়ে। এমতাবস্থায় চলতি বছরের বাড়তি আকর্ষণ হলেন স্বয়ং সৌরভ গাঙ্গুলী। স্বাভাবিকভাবেই আরো বড়সড় চমক আসতে চলেছে সন্দেহ নেই। পুজোর এক কর্মকর্তার কথায়, “চলতি বছরের শুরু থেকেই আমরা এই পুজোর প্রস্তুতি শুরু করে দিয়েছিলাম। কিভাবে প্রস্তুতি হবে কি কি কাজ করা হবে সবকিছুই আগে থেকে ভেবে রাখা হয়েছিল যাতে ভালোভাবে করা যায়”। আজকের এই বিশেষ প্রতিবেদন টি ভালো লেগে থাকলে অবশ্যই কিন্তু আপনারা তা শেয়ার করে নিতে ভুলবেন না।

Back to top button