মাছ থেকে ‘ফর্মালিন’ নামক বিষাক্ত রাসায়নিক দূর করার ৫টি টিপস!

নিজস্ব প্রতিবেদন: বাঙালীর কাছে মাছ ভাত হচ্ছে সবচেয়ে প্রিয়, আলাদা করে আর বলার কিছু নেই। দুপুরে ভাতের পাতে এক পিস মাছ না হলে পেট ভরে না! মাছ খাওয়া নিয়ে কোন সমস্যা নেই। কিন্তু মাছে আজকাল যে পরিমানে রাসায়নিক মেশানো হচ্ছে যাতে তা দ্রুত বড় হয়ে যায়, সেই ফর্মালিন নিয়ে যত সমস্যা। মাছ থেকে ফর্মালিন নামক রাসায়নিক না সরিয়ে খেলে শরীরে দেখা দিতে পারে নানা অসুবিধা

চিকিৎসকরা সাবধান করছেন এই ফর্মালিন সম্পর্কে। এই রাসায়নিকের মারাত্মক ক্ষতিকর প্রভাব পড়ছে আমাদের শরীরে। শরীরকে প্রতিদিন একটু একটু করে বিষাক্ত করছে এই ফর্মালিন। বাজার থেকে কেনা টাটকা মাছ দেখে এটা বিশ্বাস করা সম্ভব নয়। তাই মাছ রান্নার আগে তা থেকে এই ফর্মালিন যতটা সম্ভব দূর করে নেওয়া উচিত। ঘরোয়া কয়েকটি টিপস ব্যবহার করে এটা করতে পারেন।

মাছ থেকে ফর্মালিন দূর করার ৪টি টিপসঃ

১)ভিনিগার মিশ্রিত জল
২)লবণ মিশ্রিত জল
৩)চাল ধোয়া জল
৪)ঠাণ্ডা জল দিয়ে ধোয়া
৫)গরম জল

১. ভিনিগার মিশ্রিত জলঃ

ভিনিগার মিশ্রিত জলে মাত্র ১৫ মিনিট মাছ ভিজিয়ে রাখলে এর থেকে ৬০% ফর্মালিন দূর হয়ে যায়। একটি পাত্রে জল দিন তাতে ২ চা চামচ ভিনিগার মেশান। তারপর মাছ এই ভিনিগার মিশ্রিত জলে ডুবিয়ে ১৫ মিনিট মত রাখুন। সময় খেয়াল রাখবেন। ১৫ মিনিট হয়ে গেলে এই জল থেকে মাছ তুলে নর্মাল জলে ধুয়ে নিন। মাছের ক্ষতিকর ফর্মালিন দূর হয়ে যাবে।

২. লবণ মিশ্রিত জলঃ

মাছ রান্না করার এক ঘণ্টা আগে এই উপায়টি ব্যবহার করবেন। পাত্রে জল দিয়ে তাতে ১ চা চামচ লবণ মিশিয়ে দিন। এবার এর মধ্যে মাছ ডুবিয়ে এক ঘণ্টা মত রাখুন। এক ঘণ্টা পর এমনি জল দিয়ে ধুয়ে রান্না করবেন। এই উপায়ে ৯০% ফর্মালিন মাছ থেকে দূর হয়ে যায়।

৩. চাল ধোয়া জলঃ

ভাত রান্নার আগে চাল ধোয়ার যে জল তা ফর্মালিন দূর করতে দারুন কার্যকরী। এর জন্য আপনাকে যেটা করতে হবে সেটা হল প্রথমবার চাল ধোয়ার পর জল না ফেলে তা একটি বাটিতে রাখুন। এবার এই জল দিয়ে ভালো করে আগে মাছ ধুয়ে নিন। তারপর এমনি জল দিয়ে মাছ ধুয়ে রান্না করুন। ৭০% ফর্মালিন এতে দূর হয়ে যায়।

৪. ঠাণ্ডা জল দিয়ে ধোয়াঃ

Cleaning fresh fish in big sink.

এই উপায়টি সময় সাপেক্ষ। একটি পাত্রে ঠাণ্ডা জল নিয়ে তাতে ১ ঘণ্টা মাছ ভিজিয়ে রাখুন। এক ঘণ্টা হলে মাছ এমনি জলে ধুয়ে ফেলুন। এতে ৬০% ফর্মালিন মাছ থেকে দূর হয়ে যাবে। হাতে সময় থাকলে বেশি কিছু না করে এই উপায় ট্রাই করতে পারেন।

৫. গরম জলঃ

গরম জল টাটকা মাছের নয় ড্রাই ফিস বা শুঁটকি মাছের ফর্মালিন দূর করতে ব্যবহার করবেন। গরম জলের মধ্যে এক ঘণ্টা শুঁটকি মাছ ডুবিয়ে রাখলে এর থেকে যাবতীয় ফর্মালিন দূর হয়ে যায়। তারপর নর্মাল জলে ধুয়ে শুঁটকি মাছ রান্না করতে হয়।

Leave a Comment